করোনার ধাক্কায় ভাবনা হয়ে যাচ্ছে এলোমেলো

আগের সংবাদ

বাঞ্ছারামপুরে ৩৩৩ ফোন করে খাদ্য পেলেন আমির আলী

পরের সংবাদ

সভ্য সংস্কৃতি গড়তে কঠোর হওয়া দরকার

প্রকাশিত: এপ্রিল ৬, ২০২০ , ১১:২০ পূর্বাহ্ণ আপডেট: এপ্রিল ৬, ২০২০ , ১১:২০ পূর্বাহ্ণ

দিলারা জামান। করোনার ফলে সবার মতো তিনিও রয়েছেন গৃহবন্দি। বিপর্যয়ের এ সময় নানা বিষয় ও অভিনয় প্রসঙ্গে তার সঙ্গে কথা হয় ভোরের কাগজের। কথা বলেছেন শাকিল মাহমুদ

এই যে মানুষকে ঘরে থাকতে বলা হচ্ছে। কিন্তু কেউ তা গ্রাহ্য করছেন না, এ বিষয়ে আপনার মতামত কী?
আসলে আমাদের সাংস্কৃতিক অবক্ষয় ঘটেছে। যার ফলে আমাদের সামনে যে বিপর্যয় তা অগ্রাহ্য করছি। আজকে মানুষজনকে বলা হলো ঘরে থাকার জন্য কিন্তু তারা বাইরে বের হচ্ছেনই। যখন বাইরে বের হচ্ছেন তখন দুটো বেতের ঘাঁ পিঠে দিলে ঠিকই ঘরে গিয়ে বসে থাকবেন। মালয়েশিয়ায় গ্রামের গরিব মানুষদের শহরে আসতে দিত না। এটাকে অমানবিক মনে হবে কিন্তু শহর চেয়েছে গ্রামের মানুষগুলো বুঝুক শহরে কীভাবে চলতে হয়! আমাদেরও উচিত একটা সভ্য সংস্কৃতি গড়ে তুলতে খানিকটা কঠোর হওয়া।
বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনো পরামর্শ দিতে চান?
এই অবস্থাটা আমাদের সবার জন্যই বিপদের। তাই সবাইকেই বলব, পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা শুধু করোনা প্রতিরোধ করার জন্য নয়। এটা সব সময়ের জন্য হওয়া উচিত। রাস্তায় আইস্ক্রিমের খোসা, থুথু ফেলা বন্ধ করতে হবে। আজকে না হয় করোনাকে হাত-পা ধুয়ে রোধ করা গেল, কিন্তু কাল যখন আবার তা বন্ধ হবে তখন এর চেয়ে ভয়ানক ভাইরাস আক্রমণ করবে না তা কি আমরা জানি? জানি না। তাই এই প্রক্রিয়া জীবনের সঙ্গে বেঁধে নিতে হবে।
গৃহবন্দি সময় কীভাবে কাটাচ্ছেন?
আগের মতোই। বয়স হয়ে গেছে তাই সব সময় আমার গৃহবন্দি সময় কাটে। এখন যেহেতু শুটিং বন্ধ সেহেতু বাসার কাজ, রান্নাবান্না করা, টিভি দেখা এসব করেই সময় কাটছে।
বই পড়া হচ্ছে না?
এ সময়ে কোথা থেকে বই আনব? আর আমার যে বইগুলো ছিল সেগুলো কয়েকটা লাইব্রেরিতে দিয়ে দিয়েছি। কয়েক দিন পর মরে যাব তখন সেগুলোর কি হবে! তাই আগে থেকেই ব্যবস্থা করে রাখলাম।
আপনার কোন কোন নাটকের শুটিং বন্ধ?
তৌকীরের একটি ধারাবাহিক ছিল, সাজ্জাদ সুমনের একটা নাটক, ইমন নামে একটা ছেলের ঈদের নাটকের শুটিং ছিল সব কাজই আপাতত বন্ধ।
শ্যাম বেনেগালের সিনেমায় বঙ্গবন্ধুর মায়ের চরিত্রে আপনাকে নেয়া হয়েছে। সে বিষয়ে জানতে চাই….
বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে সিনেমা হচ্ছে এটা একটা ঐতিহাসিক বিষয়। তবে দুঃখের বিষয় হলো কাজটা শুরু করা গেল না। করোনা ভাইরাসের কারণে সময় পিছিয়ে সেপ্টেম্বর মাসে নেয়া হয়েছে। এখন দেখা যাক কি হয়। আর তাছাড়া মায়ের চরিত্রটি তৈরি করতে যতটুকু জানাশোনা প্রয়োজন, করছি।
আর কোনো সিনেমার কাজ রয়েছে?
মীর সাব্বিরের সিনেমায় অল্প একটু দৃশ্যে আমি আর শর্মিলী কাজ করছি। এখন তো বয়স হয়েছে। সিনেমায় বেশি সময় দিতে পারি না। আর দূরে কোথাও গিয়ে কাজ করাও সম্ভব হয় না। তাই আশপাশে কোথাও হলে করি।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়