সম্প্রসারণ করা হচ্ছে করোনা পরীক্ষার সুবিধা

আগের সংবাদ

শেরপুরে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৪

পরের সংবাদ

করোনার ছোবল

ইউরোপের পর এবার আমেরিকার পালা

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: মার্চ ২৫, ২০২০ , ১:৪৮ অপরাহ্ণ

চীনের উহান থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনার তাণ্ডব চলছে ইউরোপে। উহান থেকে প্রথমে ইরানে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত আর মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। এরপর সবচেয়ে বড় আঘাত ইউরোপে। আর চীনের রেকর্ড ভেঙে ইতালি পরিণত হয় মৃত্যুপুরীতে। পাশাপাশি স্পেনে প্রাণহানি বেড়েছে উদ্বেগজনকভাবে।

এমন পরিস্থিতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, করোনা মহামারির গতি বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে এখনও নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। এজন্য সমন্বিতভাবে পদক্ষেপ নেয়ার কথাও বলা হয়েছে।

ইউরোপে ইটালি আর স্পেনের পর এবার করোনাভাইরাসের মূল লক্ষ্য হয়ে উঠতে পারে আমেরিকা। এমনটাই আশঙ্কা করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)। সারাবিশ্বের আক্রান্ত ও মৃতের পরিসংখ্যান বিচার করে এমন আশঙ্কা করছে সংস্থাটি। কেননা, গেল ২৪ ঘণ্টায় ইউরোপ-আমেরিকায় নতুন আক্রান্তের মধ্যে ৪০ শতাংশই আমেরিকার। এই পরিসংখ্যান চিন্তায় ফেলে দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসনকে।

হু-এর মুখপাত্র মার্গারেট হ্যারিস জানাচ্ছেন, আমেরিকায় করোনা সংক্রমণের হার ব্যাপকহারে বেড়েছে। মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বিকেল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ৮৫ শতাংশ নতুন আক্রান্তই ইউরোপ ও আমেরিকায়। তার মধ্যে আবার শুধু আমেরিকাতেই ৪০ শতাংশ। তাহলে এখন কি করোনার নতুন টার্গেট হয়ে উঠছে আমেরিকা? মার্গারেট বলছেন, আমেরিকায় ব্যাপক হারে সংক্রমণ বাড়ছে। তাই ভরকেন্দ্র হয়ে ওঠার যথেষ্ট আশঙ্কা রয়েছে।

গত ২০ জানুয়ারি আমেরিকায় প্রথম করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। এরপর থেকে কিছু কিছু বাড়ছিল। চলতি মাসে ১৭ মার্চ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ছিল মাত্র ১০০। তবে গেল সপ্তাহে লাফিয়ে বাড়তে শুরু করে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। হঠাৎ করেই মৃতের সংখ্যা ১০০ থেকে বেড়ে ৮০০ হয়ে যায়।

ইতোমধ্যে আমেরিকার একাধিক প্রদেশে লকডাউন জারি হয়েছে। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজে বাসিন্দাদের ঘরে থাকার আর্জি জানিয়েছেন। খাবার-সহ অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের জোগান স্বাভাবিক রাখার সব রকম চেষ্টা চলছে। এই মুহূর্তে সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৫৪ হাজার ৮৬৭। সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত নিউইয়র্ক, নিউ জার্সি, ক্যালিফোর্নিয়া, ওয়াশিংটনের মতো প্রদেশ।

এতদিন পর্যন্ত ইউরোপকেই করোনা সংক্রমণের কেন্দ্র হিসেবে হিসেবে মনে করা হচ্ছিল। যার মধ্যে শীর্ষে ছিল ইটালি। তবে হু বলছে, ইটালিতে আশার আলো দেখা যাচ্ছে। আর আমেরিকা নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে।

এমএন