টেকনাফে ৩ লাখ পিস ইয়াবাসহ পাচারকারীকে গ্রেপ্তার

আগের সংবাদ

সব উপনির্বাচন স্থগিত চায় বিএনপি

পরের সংবাদ

ডিসিসহ ৩ ম্যাজিস্ট্রেটের বিরুদ্ধে আরিফুলের মামলা

তৈয়বুর রহমান, কুড়িগ্রাম

প্রকাশিত হয়েছে: মার্চ ১৯, ২০২০ , ৮:২০ অপরাহ্ণ

কুড়িগ্রামে বহুল আলোচিত সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটননায় সাবেক জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন, আরডিসি মো: নাজিম উদ্দিন, সহকারী কমিশনার রিন্টু বিকাশ চাকমা, সহকারী কমিশনার এসএম রাহাতুল ইসলামসহ ৩৫ থেকে ৪০ জন সরকারী কর্মচারীর বিরুদ্ধে এজাহার দাখিল করেছে সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম।

নির্যাতিত আরিফুল হাসপাতালে ভর্তি থাকায় বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) বিকেলে কুড়িগ্রাম সদর থানায় তার পক্ষে এজাহার দাখিল করেন বাংলা ট্রিবিউনের ক্রাইম রিপোর্টার নুরুজ্জামান লাবু। কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহফুজার রহমান লিখিত অভিযোগ গ্রহণের বিষয়টি নিশ্চত করেন ।

উল্লেখ্য, গত ১৪ মার্চ রাত সোয়া ১২টায় অভিযুক্ত ব্যক্তিগণ গোপনে ও প্রকাশ্যে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাংবাদিক আরিফুলের বাড়িতে ভাংচুর চালিয়ে মারপিট করে তাকে তুলে নিয়ে আসে। পরে তাকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গিয়ে এনকাউন্টারের চেষ্টা চালায়। এরপর জেলা প্রশাসন কার্যালয়ে নিয়ে এসে আবারো নির্যাতন করে মাদকের মামলা দিয়ে এক বছরের কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করে জেলে পাঠায়।

সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম

লোমহর্ষক এ ঘটনাটি পরদিন জানাজানি হলে কুড়িগ্রামের সাংবাদিকরা বিক্ষোভে ফেটে পরেন। এ নির্যাতনের প্রতিবাদে ঢাকাসহ সারাদেশে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। ঘটনার সচিত্র প্রতিবেদন ইলি্কট্রিক, প্রিন্ট ও অনলাইন পোর্টালসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার হয়। পরবর্তীতে ঘটনার সঙ্গে জড়িত জেলা প্রশাসকসহ ৩ ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রত্যাহার করার তাৎক্ষিক সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

এ ব্যাপারে সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম জানান, কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি অবস্থায় আমি চিকিৎসাধীন থাকায় আমার প্রতিনিধির মাধ্যমে কুড়িগ্রাম সদর থানায় এজাহার জমা দিয়েছি। সঠিক তদন্ত সাপেক্ষে আমাকে নির্যাতনের ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় এনে ন্যায় বিচার দাবি করছি।

এসআর