নিজেকে ও অন্যকে সুরক্ষিত রাখার উপায়

আগের সংবাদ

বাহাদুরাবাদ ঘাটে আবারো ফেরী চালুর দাবি

পরের সংবাদ

করোনা ভাইরাস

হাসপাতালসমূহের বিনামূল্যে স্বাস্থ্য পরীক্ষার দাবি

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: মার্চ ৯, ২০২০ , ৫:৩৩ অপরাহ্ণ

বিশ্বব্যাপী মরণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে জনজীবন বিপন্ন হওয়ার হুমকীতে রয়েছে, বাংলাদেশেও ৩ ব্যক্তি সনাক্ত হওয়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ১৬টি বাম রাজনৈতিক দলের নেতারা। তারা করোনা ভাইরাস হাসপাতালসমূহের সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং বিনামূল্যে সকলের স্বাস্থ্য পরীক্ষার দাবিও জানান। সোমবার (৯ মার্চ) বাম গণতান্ত্রিক জোট, ৪টি বাম দল ও বাম ঐক্য ফ্রন্ট এই তিন জোটের ১৬টি বামপন্থী দলের নেতৃবৃন্দের এক যৌথ সভা রাজধানীর তোপখানা রোডস্থ বাসদ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক ও বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বজলুর রশিদ ফিরোজ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন সিপিবির সহকারী সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, বাসদ (মার্কসবাদী) নেতা মানস নন্দী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য আকবর খান, গণসংহতি আন্দোলনের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য মনীরুদ্দিন পাপ্পু, বাচ্চু ভুইয়া, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির শহীদুল ইসলাম সবুজ, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের হামিদুল হক, জাতীয় মুক্তি কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক ডা. ফয়জুল হাকিম লালা, নয়া গণতান্ত্রিক গণমঞ্চের নেতা বিপ্লব, জাতীয় গণতান্ত্রিক গণমঞ্চের নেতা মাসুদ খান, গণমুক্তি ইউনিয়নের আহ্বায়ক ও বাম ঐক্য ফ্রন্টের সমন্বয়ক নাসিরুদ্দিন নাসু, বাসদ (মাহবুব) এর নেতা মহিনউদ্দিন চৌধুরী লিটন প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

সভায় গৃহিত প্রস্তাবে করোনা ভাইরাস সম্পর্কে রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে সনাক্তকরণ, সচেতনতা ও সতর্কতামূলক প্রচারনা ও কর্মসূচির অপ্রতুলতার কথা উল্লেখ করে সরকারি-বেসরকারি সকল গণমাধ্যমে ও রাষ্ট্রীয় সকল প্রশাসন ও সংস্থার উদ্যোগে সচেতনতামূলক প্রচার কর্মসূচি নেবার দাবি জানানো হয়। একই সাথে সরকারি-বেসরকারি সকল হাসপাতালের সক্ষমতা বৃদ্ধির কথাও বলা হয়।

প্রস্তাবে বলা হয়, করোনা ভাইরাস নিয়ে যেন ডেঙ্গুর মতো আস্ফালন বা তথ্য গোপন করার অপচেষ্টা করা না হয়। ইতিমধ্যে সংবাদ বেরিয়েছে বিমান বন্দরগুলোতে করোনা আক্রান্ত সনাক্তকরণের জন্য যে ৭টি থার্মাল স্ক্যানার কেনা হয়েছিল তার ৬টি বিকল হয়ে গেছে, যা সরকারের ক্রয় সংক্রান্ত দুর্নীতির বহিঃপ্রকাশ। এসব যন্ত্র ক্রয়ের সাথে যুক্তদের অবিলম্বে তদন্ত সাপেক্ষে বিচারের আওতায় আনার দাবি করা হয়। প্রস্তাবে বলা হয়, ইতিমধ্যে এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী করোনা নিয়ে মুনাফা লুটার উদ্দেশ্যে তৎপর রয়েছে যার ফলে সার্জিকাল মাস্কের দাম কয়েকগুন বেড়ে গেছে। এ সব অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবার দাবি জানান হয়।

সভার করোনা নিয়ে সঠিক তথ্য সরবরাহ করে জনগণকে সচেতন ও সতর্ক করে প্রিভেন্টিভ ও প্রতিষেধক মূলক ব্যবস্থা নিতে উৎসাহিত করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান বাম নেতারা। সভায় ভারতের ফ্যাসিস্ট ও সাম্প্রদায়িক প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সফর বাতিল হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করে ১৬টি বামপন্থী দল বলেছে, যখনই মোদী এদেশে আসবে তখন তাকে প্রতিহত করা হবে।

এসএইচ