করোনা রোধে মরিয়া বিশ্ব

আগের সংবাদ

সে সময়ের পত্রিকার পাতায় ৭ই মার্চের ভাষণ

পরের সংবাদ

‘এ বছরই সিনেমাটি মুক্তি দেয়ার ইচ্ছা আছে’

শাহনাজ জাহান

প্রকাশিত হয়েছে: মার্চ ৭, ২০২০ , ১১:৪০ পূর্বাহ্ণ

মঞ্চে একাধারে অভিনয়, নির্দেশনার পাশাপাশি নাটক লিখে খ্যাতি কুড়িয়েছেন হৃদি হক। টেলিভিশন নাটকেও কাজ করে চলেছেন সমানতালে। এবার নির্মাণ করছেন সিনেমা। সরকারি অনুদানের এই সিনেমার নাম ‘১৯৭১ সেই সব দিন’। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র বিভাগে সরকারি অনুদান পেয়েছে হৃদি হকের ‘১৯৭১ সেই সব দিন’ সিনেমাটি। দীর্ঘ সময় ধরে চলেছে ছবিটির প্রস্তুতির কাজ। সম্প্রতি ঠাকুরগাঁও জেলায় শুরু করেছেন শুটিং। এই সিনেমাতে শুরুতেই চমক দিয়েছেন এই নির্মাতা। জনপ্রিয় টিভি চ্যানেল এইচবিওর ‘ইনভিজিবল স্টোরিজ’ ধারাবাহিকের কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করে আলোচনায় আসা সুদীপ বিশ্বাস এবং ঢাকাই সিনেমার গ্ল্যামার কন্যা পরীমণিকে নিয়েছে সিনেমাটির অন্যতম দুটি চরিত্রে। সুদীপের শুরুটা থিয়েটার থেকে। প্রাচ্যনাট স্কুলে প্রশিক্ষণ নিয়ে প্রাচ্যনাট নাট্যদলের সঙ্গেও কাজ করেছেন বেশ কিছুদিন। মঞ্চে অভিনয় করে টেলিভিশন নাটক এবং বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল হয়ে প্রশংসিত হয়েছেন। আর সম্প্রতি এইচবিও চ্যানেলের একটি ধারাবাহিকে অভিনয় করে আলোচিত হন।

অন্যদিকে পরীমণি গ্ল্যামার নিয়ে ঢাকাই বাণিজ্যিক ধারার সিনেমায় নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। সুদীপ ও পরীমণিকে নিয়ে নতুন সিনেমার মিশনে নেমেছেন হৃদি হক। গেল মঙ্গলবার থেকে টানা ৫ দিন ঠাকুরগাঁওয়ের বিভিন্ন জায়গায় ছবিটির শুটিং হওয়ার কথা জানিয়েছেন নির্মাতা হৃদি হক। এই নির্মাতা বলেন, ‘ইচ্ছে ছিল কয়েক দিন শুটিংয়ের পর সবাইকে জানাব। কিন্তু তা আর করতে পারলাম কই। তবে ভালো লাগছে এই ভেবে, আমাদের শুরুটা খুব সুন্দর হয়েছে। সিনেমাটিতে ১ মার্চ থেকে ১৬ ডিসেম্বরের একটা জার্নি দেখাব। এটি মূলত ড. ইনামুল হকের লেখা একটি নাটক। সেই কাহিনীটাকে মূল উপজীব্য ধরে সিনেমার জন্য অন্যরকম একটা গল্প লিখেছি। ভীষণ চ্যালেঞ্জিং কাজ। মুক্তিযুদ্ধকালীন সেই সময়টাকে তুলে আনা। সিনেমাটিতে অনেক বড় একটা টিম কাজ করছে। এখনই সবার নামগুলো বলব না। তবে বিশাল আয়োজনে ছবিটির কাজ হচ্ছে। চেষ্টা করছি ভালো কিছু করার।’

সিনেমাটি কবে মুক্তি পাবে জানতে চাইলে এই নির্মাতা বলেন, ‘চলতি বছরের ডিসেম্বরে মুক্তি দেয়ার ইচ্ছা আছে। সেটা না করতে পারলে ২০২১ সালের মার্চের মধ্যে সিনেমাটি দর্শক দেখতে পাবেন। দেশের বিভিন্ন লোকেশনে শুটিং হবে। যার জন্য সময় নিয়েই কাজটি করতে হচ্ছে। তাছাড়া মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়কে ফ্রেমে ধরার জন্য অনেক প্রপস, সেট তৈরি করতে হচ্ছে।’ এই সিনেমাটির শুটিং শুরুর আগে গত নভেম্বর মাসে হৃদি হক মঞ্চে নির্দেশনা দিয়েছেন ‘আকাসে ফুইটেছে ফুল- লেটো কাহন’। এছাড়া ‘গহর বাদশা বানেছা পরী’ নির্দেশনা দিয়েও প্রশংসিত হয়েছেন তিনি। ইনামুল হক ও লাকী ইনাম দম্পতির মেয়ে হৃদি হকের বেড়ে ওঠা থিয়েটারের সঙ্গে। সেখান থেকেই গড়ে উঠেছে তার শিল্প মানস। ফলে এই গুণী তরুণের প্রথম সিনেমাটি দর্শকের কাছে প্রশংসিত হবে বলেই প্রত্যাশা সবার।

এসআর