করোনায় ৩ দেশের ভিসা সুবিধা বাতিল

আগের সংবাদ

বিএনপির নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন

পরের সংবাদ

শাবনূরের সেরা দশ সিনেমা

প্রকাশিত: মার্চ ৪, ২০২০ , ৩:৩৯ অপরাহ্ণ আপডেট: মার্চ ৪, ২০২০ , ৮:৪৫ অপরাহ্ণ

শাবনূর বর্তমানে অভিনয়ে না থাকলেও তার আবেদন কমেনি। ঢাকাই সিনেমার ইতিহাসের অন্যতম সেরা নায়িকা শাবনূর প্রখ্যাত চলচ্চিত্রকার এহতেশামের হাত ধরে চলচ্চিত্রে আসেন। তার পরিচালিত ‘চাঁদনী রাতে’ সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে শাবনূরের যাত্রা শুরু।

প্রথমে ব্যর্থ হলেও সালমান শাহের সঙ্গে জুটি গড়ে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন সময়ের নন্দিত এই নায়িকা। এরপর তার সিনেমা সুপার হিট হতে থাকে। রিয়াজ, শাকিল খান, ফেরদৌস আহমেদ ও শাকিব খান সঙ্গেও জুটি বেঁধে কখনো পিছিয়ে পড়তে হয়নি তাকে। শাবনূরের অভিনয় করা বহু সিনেমার মধ্যে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে ১০টি সিনেমা।

স্টাইলিশ, মুডি সালমান ও শাবনূরকে এ সিনেমায় ধনী-গরীবের প্রেমের গল্পে তৈরি হয় তোমাকে চাই (১৯৯৪) ছবিটি। এই চলচ্চিত্রের বিশেষ করে ‘ভাল আছি ভাল থেকো’ গানটি সারা ফেলে দেশজুড়ে। ১৯৯৫ সালে নির্মিত স্বপ্নের ঠিকানা ছবিটি সারা ফেলেছে আপামর মানুষের কাছে। ১৯৯৮ সালে বিয়ের ফুল ছবিটি মতিন রহমান পরিচালিত এ চলচ্চিত্রটি মুম্বাইয়ের ‘দিওয়ানা’র অফিসিয়াল রিমেক। শাবনূরের অভিনয় ও গানই এ সিনেমার প্রাণ। এর মধ্যে ‘তোমায় দেখলে মনে হয়’ গানটি এখনো জনপ্রিয়। এ সিনেমাতে পরিণত অভিনয়শৈলীতে শাবনূরের ভিন্ন দুটি দিক দর্শকের মনে দাগ কাটে

১৯৯৯ নারীর মন অভাবনীয় সাফল্যে নিয়ে আসে। এতেও শাবনূরের নায়ক হিসেবে পর্দায় আসেন রিয়াজ ও শাকিল খান। এটি একদিকে যেমন ব্যবসায়িক সাফল্য পেয়েছিলো তেমনি অন্যদিকে জনপ্রিয়তার আঁকাশ ছুঁয়েছিলেন শাবনূর। দেবাশীষ বিশ্বাসের শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ (২০০১) কমেডি, রোমান্টিক ঘরানার এই সিনেমাটি শাবনূরকে দিয়েছিলো অন্যরকম জনপ্রিয়তা। ২০০২ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত পরিচালক জাকির হোসেন রাজুর ভিন্ন ধরনের ভালবাসার গল্প নিয়ে নির্মিত ‘ভালবাসা কারে কয়’। সন্ত্রাসী রিয়াজের অতি আবেগ ও তার হাত থেকে রেহাই পেতে শাবনূরের প্রত্যাখ্যান এ সিনেমাতে প্রেমের নতুন ব্যাঞ্জনা তৈরি করে।

‘বৈকুণ্ঠের উইল’ উপন্যাস অবলম্বনে তৈরি হয় সুন্দরী বধূ (২০০২)। সেইসময়ের বাজারে দারুণ ব্যবসা করেছিলো ‘সুন্দরী বধূ’। মোল্লা বাড়ির বউ (২০০৫) ছবিটি টেলিভিশন নাটকের জনপ্রিয় নির্মাতা সালাউদ্দিন লাভলু তৈরি করেন। ২০০৬ দুই নয়নের আলো চবিটি ব্যাপক সারা ফেলে। নিম্নবিত্ত একটি মেয়ের জীবন-সংগ্রাম ও মর্যাদার লড়াই নিয়ে ‘দুই নয়নের আলো’র কাহিনি আবর্তিত হয়েছে। এটি দিয়ে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছিলেন শাবনূর। নিরন্তর (২০০৬) সিনেমাটিতেও নায়িকা তার অভিনয় দক্ষতা দেখাতে সক্ষম হয়েছেন।

এছাড়াও ‘বিক্ষোভ’, ‘স্বপ্নের ঠিকানা’, ‘মহামিলন’, ‘বিচার হবে’, ‘জীবন সংসার’, ‘আনন্দ অশ্রু’সহ আরও বেশ কয়েকটি সিনেমাতে শাবনূরের অনবদ্য অভিনয় তাকে নিয়ে আসে জনপ্রিয়তার শীর্ষে।

এমএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়