রাজনীতি খুবই লাভজনক ব্যবসা

আগের সংবাদ

একুশের বইমেলা প্রাণের মেলা

পরের সংবাদ

বিএনপিকে ধ্বংসের রাজনীতি পরিহার করতে হবে

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০ , ৭:৫২ অপরাহ্ণ

কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক বিএনপিকে ধ্বংসের রাজনীতি ছাড়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, আমরা দেখেছি ২০১৪ সালের নির্বাচনের আগে বিএনপি-জামাত বাংলাদেশে কি করেছে। বাড়িঘর পুড়িয়ে দিয়েছে। রেললাইন কেটে দিয়েছে। বিদ্যুতের লাইন কেটেছে। পুলিশের মাথা থেঁতলে দিয়েছে। পুলিশের গাড়ি পুড়িয়েছে। হরতাল-অবরোধ করেছে। মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। হরতাল-অবরোধের নামে বাংলার মাটিতে ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে।

তিনি বলেন, আমি তাদেরকে বলতে চাই -বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখতে হলে শান্তি দরকার। মানুষের জীবনের নিরাপত্তা দরকার। তাই আপনারা ধ্বংসের রাজনীতি দয়া করে বন্ধ করুন, সত্যিকারে সততা ও মূল্যবোধের ভিত্তিতে রাজনীতি করুন। সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষনের ওপর আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বেগম খালেদা জিয়া বলেছিলেন শেখ হাসিনা যতদিন না যাবে ততদিন আমি ঘরে ফিরে যাব না। তারপর হরতাল অবরোধ করেছে। মানুষকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। কিন্তু খালেদা জিয়া এখন দুর্নীতির মামলায় জেলে। আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ চালাচ্ছেন। তিনি বলেন, তারা সরকারের পতন ঘটাতে পারবেন না। সরকারের পতন ঘটাতে হলে জনগণকে নিয়ে যেতে হবে। আপনাদের পায়ের নিচে মাটি নাই। জনগণ আপনাদের সাথে নাই।

তিনি বলেন, দেশের স্বাধীন হওয়ার পরে পৃথিবীর অর্থনীতিবিদরা বিভিন্ন কথা বলেছিলেন। কিন্তু অত্যন্ত খুশির বিষয় আমাদের নেত্রী জননেত্রী পৃথিবীকে হতাশ করে দেখিয়ে দিয়েছেন- বাংলাদেশে বিদেশি সাহায্যের উপরে নির্ভরশীল না। আগে আমাদের বাজেটের ১৫ থেকে ২০ ভাগ বিদেশি সাহায্য থেকে আসত, এটি আজকে দুই ভাগের নিচে নেমে এসেছে। তিনি বলেন, যারা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না, যারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চায় না- তাদের ঘাড়ে এখনো পাকিস্তানের ভুত চেপে আছে। এরা বাংলাদেশে অস্থিতিশীল করতে চায়। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে-ধ্বংস করতে চায়।

ড. কামাল হোসেনের নাম উল্লেখ না করে তিনি তাকে উদ্দেশ্য করে বলেন, তিনি জীবনে নিজ থেকে নির্বাচনে জয়ী হতে পারেন নাই, যে দুইবার জিতেছিলেন তাও বঙ্গবন্ধুর ছেড়ে দেয়া আসনে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায়। তিনি বলেন কিনা বর্তমান সরকার বিনা প্রতিদ্বন্ধিতার সরকার। তিনি বলেছেন এই সরকারের পতন ঘটাতে হবে এবং প্রয়োজনে সরকারকে এবং প্রধানমন্ত্রীকে সরিয়ে দিতে হবে। আমি ওনাকে বলতে চাই এটি রাজনীতির ভাষা নয়। এটা রাজনৈতিক শিষ্টাচার পড়ে না।