চীনে করোনার নতুন সংকট, আক্রান্ত ১৭০০ স্বাস্থ্যকর্মী

আগের সংবাদ

বদলে যাবে গণমাধ্যম?

পরের সংবাদ

এবারের ভ্যালেন্টাইনে ‘ভিলেন’ করোনা

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২০ , ৯:৩৭ অপরাহ্ণ

চীনসহ বিশ্বজুড়েই চলছে করোনাভাইরাস আতঙ্ক। প্রতিদিন মারা যাচ্ছে শতশত মানুষ। আগের বছরগুলোতে যেখানে মানুষ ভ্যালেন্টাইন দিনটিকে বিশেষভাবে উদযাপন করতেন, পরস্পরের কাছে আসা কিংবা থাকার চেষ্টা করতেন। এবারে সেই আবেগে ভয়ঙ্কর থাবা বসিয়েছে করোনা ভাইরাস। প্রিয় মানুষকে আলিঙ্গন করা তো দূরের কথা, কাছেও আসা যাবে না।

ভালোবাসা দিবস উদযাপনে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করতে বলেছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা। তারা বলছেন, ভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে ভালোবাসার দিনে চুম্বন ও আলিঙ্গন থেকে বিরত থাকতে হবে। ভালোবাসা দিবস ঘিরে চরম বাণিজ্যের প্রসার ঘটনা চীনে তাই চলছে দুর্দিন।

চীনের ছোট বড় প্রায় সব রেস্তোরাঁয় এমনটিই দেখা যাচ্ছে। আগে যেখানে শত কোটি টাকার ব্যবসা হতো সেখানে বসে বসে কোটি টাকার ক্ষতি গুণছেন রেস্তোরাঁ মালিকরা। ভাইরাসের মহামারিতে ব্যবসা করার কোনো সুযোগ নেই। আতঙ্ক ভর করেছে তাদের মনে। বেঁচে থাকাই যেন বড় ‘চ্যালেঞ্জ’।

সিঙ্গপুরেও একই অবস্থা। প্রতিবেশী দেশ হওয়ায় করোনার প্রভাব সরাসরি পড়েছে দেশটির মানুষের ওপর। আগের বছরগুলোতে ভালোবাসা দিবস উদযাপনের জন্য বিশ্বের নানাপ্রান্ত থেকে পর্যটক আসতেন এখানে। এখন সেখানে বেঁচে থাকার ‘লড়াই’ করতে হচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরিসংখ্যান অনুযায়ী, চীনের বাইরে কেবল সিঙ্গাপুরেই করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সর্বোচ্চ ৫৮ জন।

আন্তর্জাতিক বার্তাসংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনার প্রভাবে ক্ষতি গুণছেন চীনের বহু ব্যবসায়ী। এ রোগের প্রাদুর্ভার হওয়ার পর চীনের এক শহর থেকে আরেক শহরে ভ্রমণ কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। অন্যান্য বছরে এদিনে বিশেষ মেনু ও রিজার্ভের বুকিং নিয়ে হিমশিম খেতে হয়। তবে এবার রিজার্ভ শূন্যের কোটায় নেমে এসেছে।

চীনে করোনা ছড়িয়ে পর থেকেই ব্যবসায়ে চরম মন্দা অবস্থা। এখন পর্যন্ত ভ্যালেন্টাইনস ডে দুঃখের বার্তাই নিয়ে এসেছে। এক ব্যবসায়ী বলেছেন, আগের রূপ ফিরে আসতে সময় লাগবে। এই সংকটের সমাধান কবে হবে তা নিয়েই উদ্বিগ্ন তারা। ওই ব্যবসায়ীর রেস্তোরাঁয় এ পর্যন্ত ক্ষতি হয়েছে সাত লাখ ইউয়ান।

তথ্যমতে, এ পর্যন্ত কেবল চীনে নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজার পেরিয়েছে। মৃত্যু হয়েছে দেড় হাজারের কাছাকাছি। চীনের বাইরে এ পর্যন্ত ২৫টি দেশে আড়াইশর বেশি মানুষের মধ্যে করোনা ধরা পড়েছে। এ কারণে গোটা বিশ্বজুড়েই আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। ভালোবাসা আর প্রেমে ভিলেন হয়ে দেখা দিয়েছে করোনা।

এনএম