পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে আগুন

আগের সংবাদ

পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারের আগুন নিয়ন্ত্রনে

পরের সংবাদ

মাসব্যাপী জেলে উৎসব

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ভোলায় নৌকাবাইচ

এইচ এম নাহিদ, ভোলা থেকে

প্রকাশিত হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২০ , ৯:৩৪ অপরাহ্ণ

দুপুর গড়িয়ে বিকেল। তখন শান্ত ছিল মেঘনা। চারদিকে উৎসুক জনতার ভিড়। এরমধ্যে ঢেউয়ের তালে তালে ছুটছে নৌকা। বিভিন্ন স্লোগান নিয়ে এগিয়ে চলছে নৌকাগুলো। অবশেষে গন্তব্যে পৌঁছে হাসি ফিরলো বিজয়ী দলের। এমন চিত্রই দেখা গেল মেঘনা ঘেষা জনপদ ভোলার ইলিশা ইউনিয়নের ফেরিঘাট এলাকায়।জেলে উৎসবকে কেন্দ্র করে পুরো এলাকা যেন উৎসবের জনপদে পরিণত হয়। জীবন-জীবিকার টানে ছুটে চলা জেলেদের মুখে হাসি ফোটানোর লক্ষ্যে আয়োজন করা হয়েছিল ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচের।

বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে পূর্ব ইলিশা যুব ফাউন্ডেশনের আয়োজনে জেলে উৎসবে এ নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত হয় মাসব্যাপী জেলে উৎসবের বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) ছিল শেষ দিন।

শেষ দিনের বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে ছিল নানা আয়োজন। এরমধ্যে নৌকা বাইচ, হা-ডু-ডু খেলা, কলাগাছে উঠা ও দাড়িটানাসহ নানা আয়োজন করা হয়। এছাড়াও ছিল মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরষ্কার বিতরণ। হয় জাদু প্রদর্শনী।
এরআগে, সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে ‘জেলে উৎসবের সমাপণী’ অনুষ্ঠান শুরু হয়। এরপর বর্ণাঢ্য র‌্যালি ভোলা-লক্ষীপুর সড়কের বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে অনুষ্ঠানস্থলে এসে শেষ হয়। র‌্যালি শেষে জেলেদের নিয়ে মঞ্চ নাটক ‘জেলেদের জীবনচিত্র’ নাটক পরিবেশিত হয়। এরপর কবিতা আবৃত্তি অনুষ্ঠিত হয়। জেলে উৎসবের বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় শুধুমাত্র মেঘনার জেলেরা অংশ নেয়।

পূর্ব ইলিশা যুব ফাউন্ডেশনের সভাপতি আনোয়ার হোসেন জানান, জীবন-জীবিকার টানে মেঘনায় প্রতিনিয়ত মাছ শিকার করেন জেলেরা। কিন্তু তারা আনন্দ-উৎসবের সুযোগ থেকে বঞ্চিত। ওই সব জেলের মুখে হাসি ফোটানো ও সবার সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে জেলেদের নিয়ে ‘জেলে উৎসবের’ আয়োজন করা হয়। নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় চডার মাথা, বিশ্ব রোড জয়লাভ করে।

রাতে পুরষ্কার ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটবে। পূর্ব ইলিশা ফাউন্ডেশনের এক ঝাঁককর্মী নিরলসভাবে পুরো অনুষ্ঠানে সহযোগিতা করেছেন।

ডিসি