পাক শিবিরে আজও শফিউলের আঘাত

আগের সংবাদ

দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে জয়ের পথে পাকিস্তান

পরের সংবাদ

প্রথমার্ধেই বুরুন্ডির জালে ফিলিস্তিনের ৩ গোল

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ২৫, ২০২০ , ৫:১৬ অপরাহ্ণ

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ-২০২০’ এর ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছে বুরুন্ডি ও ফিলিস্তিন। ইতোমধ্যে খেলার প্রথমার্ধ শেষ হয়েছে। ৩ গোল হজম করেছে বুরিন্ডি। রক্ষণভাগের যে দুর্বলতা, সেটার সুযোগ নিয়েছে ফিলিস্তিন। ২৬ মিনিটের মধ্যেই তারা এগিয়ে যায় ৩-০ গোলে।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ম্যাচ শুরু হতে না হতেই লিড নেয় ফিলিস্তিন। ৩ মিনিটের মাথায় ফিলিস্তিনের অধিনায়ক সামেহ মারাবা ক্রসে বল দেন মোহাম্মদ ডারউইশকে। ডারউইশ চিপ করে বল বাড়িয়ে দেন ডি বক্সের মধ্যে থাকা খালেদ সালেমকে। সালেমের দারুণ ফিনিশিংয়ে শুরুতেই এগিয়ে যায় ফিলিস্তিন।

৯ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন অধিনায়ক সামেহ মারাবা। এ সময় কর্নার পায় ফিলিস্তিন। মাহমুদ আবুওয়ারদার নেওয়া কর্নার কিক বুরুন্ডির রক্ষণভাগের খেলোয়াড় ক্লিয়ার করেন। কিন্তু বল আবার চলে যায় মাহমুদের কাছে। তিনি সেখান ক্রসে ডি বক্সে পাঠান। বুরুন্ডির রক্ষণভাগের একজন খেলোয়াড় হেড দিয়ে ক্লিয়ার করে। বল পেয়ে যান মারাবা। মারাবা ট্যাপ করেন। বল সবার মাথার উপর দিয়ে গিয়ে গোললাইনের ভেতরে পরে।

২০ মিনিটে গোল শোধ করেই ফেলেছিল বুরুন্ডি। কিন্তু ফিলিস্তিনের গোলরক্ষক তৌফিক আবুহাম্মাদে রক্ষা পায়। এ সময় ডি বক্সের বাইরে থেকে জোরালো শট নেন বুরুন্ডির রক্ষণভাগের হিতিমানা হামজা। সেটি রুখে দেন গোলরক্ষক তৌফিক। তার হাত ফসকে বল চলে আসে সামনে। সেখান থেকে শট নেন বুরুন্ডির আরেক রক্ষণভাগের খেলোয়াড় আসমান দিকুমানা। সেটিও রুখে দেন তৌফিক। ২৬ মিনিটে ব্যবধান ৩-০ করে ফেলে যুদ্ধবিধ্বস্ত ফিলিস্তিন। এ সময় ডি বক্সের মধ্যে বল পেয়ে শট নেন খালেদ সালেম। কিন্তু তার নেওয়া শট পোস্ট কাঁপিয়ে ফিরে আসে। সেখান থেকে বল পান লাইথ খারুব। তার নেওয়া শট পোস্ট ঘেষে জালে আশ্রয় নেয়।

দুই গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হিসেবে সেমিফাইনালে উঠে আসে দেশ দুটি। ‘এ’ গ্রুপে স্বাগতিক বাংলাদেশ ও শ্রীলংকাকে হারিয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে সেরা চারে উঠে আসে ফিলিস্তিন। ‘বি’ গ্রুপ থেকে সিশেলস ও মরিশাসকে হারিয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে উঠে আসে বুরুন্ডি।

এসএইচ