বিজয়কে বানচাল করার অপচেষ্টা চলছে: ইশরাক

আগের সংবাদ

হাফিজকে ফেরালেন মুস্তাফিজ

পরের সংবাদ

ছুটির দিনে লোকারণ্য, অফারের ছড়াছড়ি

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৪, ২০২০ , ৫:২২ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২৪, ২০২০ , ৫:২৪ অপরাহ্ণ

আগামী সপ্তাহেই শেষ হচ্ছে বাণিজ্যমন্ত্রণালয়ের রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর বিশাল কর্মযজ্ঞ ঢাকা আর্ন্তজাতিক বাণিজ্যমেলা। বছরের অন্যতম এই বাণিজ্য আয়োজনের শেষ সময়ে যেমন ভিড় বাড়ছে, তেমনি বেড়েছে বেচা-বিক্রি। আর ক্রেতাদের মনযোগ আকর্ষণ করতে ছোট ছোট স্টল থেকে শুরু করে বড় বড় কোম্পানিগুলো দিচ্ছে নানা ধরণের অফার। উদ্দেশ্য একটাই বিক্রি বাড়ানো। এতে জমে উঠেছে বাণিজ্যমেলার এই আসর।

শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। বেলা ১১ টা থেকেই ক্রেতা-দর্শনার্থীর আনাগোনা বাড়তে থাকে। দলে দলে তরুণ-তরুণী থেকে শুরু করে অনেকে সপরিবারে মেলায় প্রবেশ করছেন। বেলা ১২টায় কাউন্টারগুলোতে দীর্ঘ সারি লক্ষ্য করা যায়।

পরিবারের সঙ্গে এসেছেন মতিঝিল আইডিয়াল স্কুলের অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ফারহান আমিন। তিনি বলেন, মেলায় শুরুর দিকে আসার ইচ্ছে ছিল। আজ ছুটির দিন হওয়ায় মা-বাবার সঙ্গে এসেছি। কিছু কেনাকাটা রয়েছে, তাই আসলাম। মেলাও দেখা হবে কেনাকাটা হবেও বলে জানান এই শিক্ষার্থী।

এর আগে মেলার প্রধান ফটক উন্মুক্ত করে দেয়ার আগেই সারিবদ্ধভাবে অপেক্ষা করছেন বিভিন্ন স্টল-প্যাভিলিয়নে কর্মরতরা। সঙ্গে চোখে পড়ার মতো ছিলো দর্শনার্থী। সপ্তাহের অন্যদিনে ক্রেতার চেয়ে দর্শনার্থীর সংখ্যা বেশি লক্ষ্য করা গেলেও শুক্রবার তা ভিন্ন। এদিন দর্শনার্থীর চেয়ে ক্রেতার সংখ্যা বেশি হয় বলে বিক্রেতা সূত্রে জানা যায়।

লোকে লোকারণ্য বাণিজ্য মেলা। ছবি: ভোরের কাগজ।

মেলা প্রাঙ্গণে দর্শনার্থী প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় পণ্য বেচা-বিক্রি। আগতদের অনেকেই স্টল কর্তৃপক্ষের কাছে পণ্যের গুণাগুণ বিষয়ে জানতে চান। তা জেনে অনেকেই কেনা-কাটায় সময় কাটাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন।

অপরদিকে বেশি ক্রেতা-দর্শনার্থীর আগমনে হিমশিম খেতে হয় দোকানদারদের। ক্রেতার তুলনায় তাদের সংখ্যা হাতেগোনা হওয়ায় সকালে বেগ পেতে হয়। তবুও তারা ক্রেতার চাহিদা পূরণে পছন্দের পণ্য বুঝিয়ে দেয়ায় ব্যস্ত থাকছেন।

রাজধানীর বাড্ডা থেকে পরিবার নিয়ে মেলায় এসেছেন চামেলি আক্তার। তিনি ভোরের কাগজকে বলেন, মেলায় কেনা-কাটা করতে সকালের সময়কে বেছে নিয়েছিলাম। কিন্তু সকাল থেকেই দর্শনার্থীর আগমন, বেশি তবু পণ্য কিনতে হবে। ফার্নিচার কেনার উদ্দেশে পুরান ঢাকা থেকে মেলায় এসেছেন হারুন। তিনি বলেন, ভালোমানের পণ্য আর দেখে নেয়ার সুযোগ আছে মেলায়। এজন্য সকাল সকাল মেলায় এসেছি। পণ্য কেনা হয়েছে, এবার বাসায় ফেরার পালা।

এনএম

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়