রাজধানীতে প্রেমিকের বাসায় প্রেমিকার আত্মহত্যা

আগের সংবাদ

দিনে আড্ডায় কলেজছাত্ররা, রাতে যৌনকর্মী

পরের সংবাদ

উৎসবমুখর শিল্পকলা একাডেমি

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২১, ২০২০ , ৭:৪৫ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২১, ২০২০ , ৭:৪৫ অপরাহ্ণ

শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে চলছে ২১দিনের বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক উৎসব ২০২০। বঙ্গবন্ধু এবং মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সংগীত ও নৃত্য, নাটকের কোরিওগ্রাফি, বৃন্দ আবৃত্তি, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠি সম্প্রদায়ের পরিবেশনা, আঞ্চলিক ও জেলা ব্রান্ডিং বিষয়ক সংগীত ও নৃত্য এবং জেলার ঐতিহ্যবাহী ভিডিও চিত্র প্রদর্শনী, সমবেত সংগীত, যন্ত্রসংগীত, ঐতিহ্যবাহী লোকজ খেলা, পালা, একক সংগীত, বাউল সংগীত, ঐতিহ্যবাহী লোকনাট্য, যাত্রা, সমবেত নৃত্য, অ্যাক্রোবেটিক, বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুদের পরিবেশনা, পুতুল নাট্য, একক আবৃত্তি, শিশুদের পরিবেশনাসহ নানা আয়োজনে সাজানো প্রতিদিন বিকেল ৪টা থেকে রাত সাড়ে নয়টা পর্যন্ত একাডেমির নন্দনমঞ্চ ও উন্মুক্ত প্রাঙ্গণে চলছে এই উৎসব।

আর এসব সাংস্কৃতিক কর্মযজ্ঞে অংশ নিচ্ছেন সারাদেশের ৬৪টি জেলা, ৬৪টি উপজেলা এবং জাতীয় পর্যায়ের পাঁচ হাজারের অধিক শিল্পী ও শতাধিক সংগঠন। এছাড়াও একাডেমি প্রাঙ্গণে প্রতিদিন রাত ৮টায় থাকছে একটি লোকনাট্যের পরিবেশনা। মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) ছিল ২১ দিনের এই উৎসবের ১৯তম দিন। যথারীতি জাতীয়সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে বিকেল চারটায় একাডেমির নন্দনমঞ্চে শুরু হয় এদিনের আয়োজন।

এরপর প্রতিদিনের মতো অ্যাক্রোবেটিক শো, সমবেতসঙ্গীত, এককসঙ্গীত, দলীয় নৃত্য পরিবেশন করে শিল্পকলা একাডেমির শিল্পীরা।
দ্বিতীয় পর্বে জেলা পরিবেশনা পর্বে নিজ নিজ জেলার বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড নিয়ে অংশ নেয় লক্ষ্মীপুর, লালমনিরহাট ও চাঁদপুর জেলার শিল্পীরা। সবশেষে রাত ৮টায় একাডেমি প্রাঙ্গণে পরিবেশিত হয় ঐতিহ্যবাহী লোকনাট্য ‘কবিগান’। কাল ২৩ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার শেষ হবে ২১দিনের এই উৎসব।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়