যুবলীগ নেতাকে ‘জঙ্গী’ বানিয়ে মামলা, বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী

আগের সংবাদ

বেঙ্গলের ফজলে হাসান আবেদ স্মরণ

পরের সংবাদ

নৃত্যের ছন্দে মুখর ছায়ানট

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ১৭, ২০২০ , ১০:২৭ অপরাহ্ণ

নৃত্য নয় যেন একেকটি কবিতা রচনা করলেন শিল্পীরা। আর এই নৃত্যের ছন্দেই মুখরিত হলো ছায়ানটের সন্ধ্যাটি। শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) রাজধানীর ছায়ানট ভবনে অনুষ্ঠিত হয় ছায়ানটের নৃত্য উৎসব। এসময় নৃত্যগুরু ও শিক্ষার্থীদের নৃত্য পরিবেশনার মধ্য দিয়ে ছুটির সন্ধ্যায় বর্ণিল উৎসব উপভোগ করেন দর্শকরা।

উৎসবের উদ্বোধন হয় ছায়ানটের নির্বাহী সভাপতি ডা. সারোয়ার আলীর স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে। তিনি বলেন, শরীরী সঞ্চালনের মধ্য দিয়ে কোনো ঘটনা ও উপলব্ধিকে প্রকাশ করে থাকেন নৃত্যশিল্পীরা। মুক্তিযুদ্ধের পর গত কয়েক দশকে নৃত্য চর্চার বিকাশ ও বিস্তার ঘটতে দেখা যায় আমাদের এই ভূখণ্ডে।
স্বাগত কথনে আরো অংশগ্রহন করেন ছায়ানটের নৃত্য শিক্ষক বেলায়েত হোসেন খান। তিনি বলেন, প্রকৃত শিক্ষার জন্য সংস্কৃতির যোগ জরুরি। সেদিক থেকে সঙ্গীত ও নৃত্যের চর্চা যত প্রসার পাবে সমাজ তত অগ্রসর হবে।

সিলেটের একাডেমি ফর মনিপুরী কালচার এন্ড আর্টসের শিল্পীদের ‘সূর্য প্রণাম’ পরিবেশনা দিয়ে শুরু হয় উৎসব। সূর্য প্রণাম শেষে মঞ্চে আসেন ঢাকার শিল্পী বাবরুল আলম চৌধুরী। তিনি পরিবেশন করেন ‘শিবস্তুতি’। এরপর নৃত্য পরিবেশন করেন সামিনা হোসেন প্রেমা। তামান্না রহমানের পরিচালনায় দলীয় নৃত্য পরিবেশন করে নৃত্যম নৃত্যশীলন কেন্দ্র। এছাড়াও নৃত্য পরিবেশন করে ধৃতি নর্তনালয় ও ছায়ানটের শিল্পীরা।

উৎসবে ওড়িশি নৃত্য পরিবেশন করে নৃত্যছন্দ এর শিল্পীরা। গৌড়ীয় নৃত্য পরিবেশন করেন শিল্পী র‌্যাচেল প্রিয়াংকা প্যারিস। ভরতনাট্যম পরিবশনায় আনেন রুবাশা মারিয়ামা খান, অর্ণ কমলিকা, অর্থী আহমেদ, অমিত চৌধুরী, সৃষ্টি কালচারাল সেন্টার ও ছায়ানটের শিল্পীরা। কত্থক নৃত্য পরিবেশন করে কত্থক নৃত্য সম্প্রদায় ও রেওয়াজ পারফর্মার্স স্কুল। এসময় একক নৃত্য পরিবেশন করে মাসুম হোসাইন।  শাস্ত্রীয় নৃত্যের পাঁচটি ধারায় ভাগ করা হয় উৎসবের পর্বগুলো। যেখানে সারাদেশ থেকে শাস্ত্রীয় নৃত্য শিল্পীদের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে ছায়ানট ভবন।

এসএইচ