বড় জয়ে শুরু বুরুন্ডির

আগের সংবাদ

বিপিএলের শীর্ষ পাঁচ বোলার-ব্যাটসম্যান

পরের সংবাদ

সেমিতে সানিয়া

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ১৬, ২০২০ , ১০:১০ অপরাহ্ণ

হোবার্ট আন্তর্জাতিক টেনিস প্রতিযোগিতায় মেয়েদের দ্বৈত প্রতিযোগিতার সেমি ফাইনালে উঠেছেন ভারতীয় টেনিসার সানিয়া মির্জা ও ইউক্রেনের টেনিসার নাদিয়া কিচেনক জুটি। বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়ার হোবার্ট টেনিস স্টেডিয়ামের সেন্ট্রাল কোর্টে ২ আমেরিকান টেনিসার ক্রিশ্চিয়ান ম্যাকহালে ও ভানিয়া কিং জুুটিকে ৬-২, ৪-৬, ১০-৪ সেটে হারিয়ে তারা সেমি নিশ্চিত করেন। ম্যাচটিতে প্রথম সেটটি জিতে নিলেও দ্বিতীয় সেটে হোঁচট খান সানিয়া-নাদিয়া জুটি। কিন্তু তৃতীয় সেটে তাদের কাছে আর পাত্তা পায়নি আমেরিকান জুটি।

২০১৭ সালে ইনজুরি থেকে সেরে ওঠার জন্য টেনিস কোর্ট থেকে সাময়িক বিরতি নেন সানিয়া। এরপর ২০১৮ সালে পুত্র সন্তানের জন্ম দেন তিনি। এরপর তিনি আরো ১ বছরের বেশি সময় বিরতিতে থাকেন। ফলে ইনজুরি ও সন্তান জন্মদানের জন্য প্রায় ৩ বছর আর র‌্যাকেট হাতে কোর্টে নামতে পারেননি ভারতের এই টেনিসার। এই বছর হোবার্ট আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় খেলার মাধ্যমে আবার টেনিসে প্রত্যাবর্তন করেন তিনি। আর প্রত্যাবর্তন প্রতিযোগিতায় সেমিতে পৌঁছে গেলেন।

সানিয়া-নাদিয়া ফাইনালে ওঠার মিশনে শুক্রবার স্লোভেনিয়ান টেনিসার তামারা জিদানসেক ও চেক প্রজাতন্ত্রের মারি বোজকোভা জুটির বিপক্ষে খেলতে নামবেন। বাংলাদেশ সময় সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে শুরু হবে ম্যাচটি। আজকের সেমিফাইনাল ম্যাচটি যদি সানিয়া মির্জা জিতে নিতে পারেন তাহলে সেটি তার জন্য স্মরণীয় প্রত্যাবর্তন হয়ে থাকবে।

এদিকে সানিয়া মির্জা তার ক্যারিয়ারে সবচেয়ে বেশি সফল হয়েছেন মেয়েদের দ্বৈত টেনিসে। তিনি এখন পর্যন্ত ৪১ বার দ্বৈত প্রতিযোগিতার শিরোপা জিতেছেন। এরমধ্যে রয়েছে ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা, ২০১৫ সালের উইম্বলডন ওপেন ও ইউএস ওপেনের শিরোপা। মেয়েদের একক প্রতিযোগিতায় তিনি এখন পর্যন্ত মাত্র একবার ডব্লিউটির শিরোপা জিতেছেন। তবে গ্রান্ডস্লামের কোনো শিরোপা জিততে পারেননি তিনি। গ্রান্ডস্লামের একক প্রতিযোগিতায় তার সর্বোচ্চ সাফল্য আসে ২০০৫ সালে। সেবার ইউএস ওপেনের চতুর্থ রাউন্ড পর্যন্ত খেলেছিলেন সানিয়া।

এসএইচ