নক্ষত্রলোকে আরেক ‘পৃথিবী’

আগের সংবাদ

অজিদের রেকর্ডে বিধ্বস্ত ভারত

পরের সংবাদ

জয় পেল টটেনহাম-মিলান

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ১৬, ২০২০ , ১০:৫৩ পূর্বাহ্ণ

এফএ কাপের তৃতীয় রাউন্ডে মিডলসবার্গকে ২-১ ব্যবধানে হারিয়েছে টটেনহাম। এ জয়ের আগে গত শনিবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে লিভারপুলের বিপক্ষে ১-০ গোলে হেরেছিল স্পাররা। ওই ম্যাচে বদলি খেলোয়াড় হিসেবে দারুণ নৈপুণ্য প্রদর্শন করেছিলেন লো সেলসো ও এরিক লামেলা। তাদের নৈপুণ্যে মুগ্ধ হয়েই এফএ কাপের তৃতীয় রাউন্ডে মিডলসবার্গের বিপক্ষে এ ২ আর্জেন্টাইনকে নিয়মিত একাদশে ঠাঁই দেন কোচ। সুযোগ পেয়ে কোচের আস্থার প্রতিদান দিয়েছেন লো সেলসো ও এরিক লামেলা। অন্যদিকে ইন্টারমিলানে যোগ দিয়েই দলের প্রয়োজনে গোল করে যাচ্ছেন বেলজিয়ান ফরোয়াড রোমেলু লুকাকু। কোপা ইতালিয়ার রাউন্ড সিক্সটিনে লুকাকুর জোড়া গোলে কালিয়ারিকে ৪-১ ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছে আন্তনিও কন্তের দল। চোটের কারণে মাঠের বাইরে আছেন টটেনহামের ইংলিশ অধিনায়ক হ্যারি কেন। ডেলে আলি ও সং হিয়ুং মিনের মতো তারকারা ছিলেন না মূল একাদশে। ম্যাচের শুরু থেকে আধিপত্য বিস্তার করেই খেলতে থাকে টটেনহাম। ১৫ মিনিটের ব্যবধানে দুটি গোল আসে জিওভানি লো সেলসো ও এরিক লামেলার কল্যাণে। অবশ্য গোল দুটির পেছনে মিডলসবোরোর দুর্বল রক্ষণভাগের অনেক অবদান!

শুরুর গোলটা হয়েছে গোলকিপারের ভুলে। দ্বিতীয় মিনিটে বোরো গোলকিপার টমাস ভুল পাস দিয়ে বসেন লো সেলসোকে। সেই বল পেয়ে তা জালে জড়িয়ে দিয়েছেন আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার। ১৫ মিনিটে সুযোগের সদ্ব্যবহার করেছেন লামেলা। করেছেন দ্বিতীয় গোল।

দ্বিতীয়ার্ধের শেষ দিকে আক্রমণে ধার বাড়িয়ে স্পারদের ভড়কে দিতে থাকে মিডলসবোরো। তাতে ৮৩ মিনিটে আসে একটি গোল। গোলটি করেছেন জর্জ অ্যালান। আরো গোল করার সুযোগও এসেছিল দলটির। কিন্তু স্পার গোলরক্ষকের দৃঢ়তায় সমতায় ফিরতে পারেনি মিডলসবোরো। তবে লিড ধরে রাখতে ঘাম ঝরাতে হয়েছে মরিনহোর শিষ্যদের। আটবারের এফএ কাপ চ্যাম্পিয়ন টটেনহাম পরের রাউন্ডে মুখোমুখি হবে সাউদাম্পটনের।

কোপা ইতালিয়ার রাউন্ড সিক্সটিনে ইন্টারমিলান সমর্থকদের আনন্দে ভাসান লুকাকু। এরপর আরো বেশি ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা কন্তের শিষ্যদের আক্রমণে ব্যতিব্যস্ত থেকেছে কালিয়ারি শিবির। রক্ষণে দেয়াল তুলেও কোনো লাভ হয়নি তাদের। ২২ মিনিটে নিকোলা বারেল্লার পাস থেকে পুনরায় ইন্টারকে এগিয়ে দেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার বোর্হা ভালেরো।

দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে ফের স্পটলাইটটা নিজের দিকে টেনে নেন লুকাকু। ভালেরোর পাস থেকে দলের ব্যবধানটা ৩-০ করেন এই বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড। ৭২ মিনিটে অবশ্য ইন্টারও এক গোল হজম করে বসে। সেরির পাস থেকে গোলটি করেন ক্রিশ্চিয়ান ওলিভা। তবে তাতেও লাভ হয়নি কালিয়ারির। ৮০ মিনিটে তাদের জালে শেষ বলটি জড়িয়ে দেন আন্দ্রে রোনোচ্চিয়া।

এমএইচ