শিল্পকলায় প্রাচ্যনাটের ‘দেওয়ান গাজীর কিসসা’

আগের সংবাদ

ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের মানববন্ধন

পরের সংবাদ

বাবার সহায়তায় কিশোরীকে ধর্ষণ করল পাওনাদার

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ১৫, ২০২০ , ৫:১৮ অপরাহ্ণ

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে বাবার কাছে পাওনা টাকা আদায় করতে না পারায় ১৩ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা করা হয়েছে। ধর্ষণে সহায়তাকারী কিশোরীর বাবাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তবে ধর্ষককে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। কিশোরীর বাবা ধর্ষক আবুলকে ফোন দিয়ে (৩৬) পালিয়ে যেতে বলেন।

মঙ্গলবার ( ১৪ জানুয়ারি দিবাগত রাত ১টার দিকে ওই কিশোরীর চিকিৎসা ও শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে।

কামরাঙ্গীরচর থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) শেখ মো. মোর্শেদ আলী জানান, কিশোরীর বয়স ১৩ বছর। তেমন কিছুই করে না সে। তার মা প্রবাসী। বাবার সঙ্গে কামরাঙ্গীরচর বেটারীঘাট এলাকায় থাকে। তার বাবা আবুল (৩৬) নামের এক ব্যক্তির মুরগীর দোকানের কর্মচারী। দোকান মালিক আবুল ওই কিশোরীর বাবার কাছে ৬ হাজার টাকা পায়। এক বছর আগে থেকেই তাগাদা দিলেও টাকা দিতে পারেনি কিশোরীর বাবা। পরে আবুল তার মেয়ের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করার কুপ্রস্তাব দেয়। এরপর থেকেই কিশোরীর সঙ্গে সম্পর্ক করার চেষ্টা করছিলো সে। বাবার সহায়তায় এক পর্যায়ে কিশোরীকে রাজি করায় আবুল। এরপর দীর্ঘদিন কিশোরীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করে সে। সর্বশেষ ১১জানুয়ারি কিশোরীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করে দোকান মালিক। ওই কিশোরী পাশের বাসার এক মহিলার কাছে ঘটনা খোলে বলে তাকে বাঁচাতে। ওই প্রতিবেশী মঙ্গলবার বিকেলে ৯৯৯ এ ফোন দিলে ওই বাসা থেকে কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়।

এস আই আরো জানান, ওই প্রতিবেশী বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। আটক হওয়ার পর কিশোরীর বাবাই কৌশলে ফোন দিয়ে দোকান মালিক আবুলকে পালিয়ে থাকতে বলেন। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

এসআর