আমরা আচরণবিধি মানছি, বিএনপি মানছে না

আগের সংবাদ

এলপিজি গ্যাসের মূল্য নির্ধারণের নির্দেশনা চেয়ে রিট

পরের সংবাদ

শিরোপা ধরে রাখলেন ক্যারোলিন

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ১৩, ২০২০ , ১:৩১ অপরাহ্ণ

তিন বছর পর টেনিস কোর্টে শিরোপা জিতেছেন আমেরিকান টেনিসার সেরেনা উইলিয়ামস। গতকাল নিউজিল্যান্ডের মাটিতে অনুষ্ঠিত হওয়া অকল্যান্ড ওপেনের ফাইনালে আরেক আমেরিকান টেনিসার জেসিকা পেগুলাকে ৬-৩, ৬-৪ সেটে হারিয়ে শিরোপা জেতেন তিনি। চ্যাম্পিয়ন হিসেবে ৬ লাখ ৬৫ হাজার নিউজিল্যান্ড ডলার জেতেন তিনি। পুরস্কারের পুরো অর্থটিই তিনি অস্ট্রেলিয়ায় দাবানলে আক্রান্ত মানুষকে দান করে দিয়েছেন। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মাত্র কয়েক মিনিট পরেই এই ঘোষণা দেন তিনি।

অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অনুষ্ঠিত হওয়া ব্রিসবেন আন্তর্জাতিক ওপেনে শিরোপা জিতেছেন বিশ্বের নম্বর টু টেনিসার ক্যারোলিনা পিসকোভা। আমেরিকান টেনিসার ম্যাডিসন কিসকে ৬-৪, ৬-৪, ৭-৫ সেটে হারিয়ে শিরোপা নিজের কাছে রেখে দেন। ২০১৯ সালেও ব্রিসবেন আন্তর্জাতিক ওপেনের শিরোপা জিতেছিলেন।

এদিকে সেরেনা উইলিয়ামস এ পর্যন্ত তার ক্যারিয়ারে ৭২টি শিরোপা জিতেছেন। তার মধ্যে রয়েছে ২৩টি গ্র্যান্ডস্লামের শিরোপা, ৫টি ডব্লিওটিএ-এর শিরোপা। তবে অকল্যান্ড ওপেনের শিরোপাটি তার জন্য একটু আলাদা। কারণ টানা ৩ বছর শিরোপাহীন থাকার পর এই প্রথম শিরোপার ছোঁয়া পেয়েছেন তিনি। ২০১৭ সালে মেয়ে সন্তানের জন্ম দেন তিনি। সন্তান জন্মদানের জন্য দীর্ঘদিন টেনিস কোর্টের বাইরে ছিলেন। এরপর তার মেয়ে একটু বড় হলে আবার কোর্টে ফেরেন। এই ৩ বছরের মধ্যে তিনি ৫টি বড় টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠেছিলেন। কিন্তু এই ৫ বারই তাকে রানার্সআপ হয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়। এই অকল্যান্ড ওপেনের শিরোপা জয়ের মাধ্যমে তার দীর্ঘ শিরোপার খরাও কাটল। তিন বছর পর শিরোপা জয়ের পর সেরেনা নিজেও দারুণ উচ্ছসিত। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, ‘দারুণ লাগছে। এই মুহূর্তটির জন্য আমি গত ২ বছর ধরে অপেক্ষা করছি। আপনারা আসলে আমার চেহারায় সন্তুষ্টির ছাপ দেখতে পাচ্ছেন। আমি যেন হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছি’। তা ছাড়া ম্যাচটি নিয়েও কথা বলেন সেরেনা।

তিনি বলেন, ‘প্রতিপক্ষ হিসেবে জেসিকা ছিল অসাধারণ। সত্যি বলতে এটি অনেক কঠিন ও দারুণ একটি ম্যাচ ছিল। সে থাকায় ম্যাচটি আমি দারুণ উপভোগ করেছি’।

ম্যাচ শেষে কথা বলার শেষে সেরেনা তার পাওয়া অর্থ অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের দান করে দেয়ার ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, ‘আমি গত ২০ বছর ধরে অস্ট্রেলিয়ার টেনিস খেলছি। তাই এটি আমার জন্য কষ্টদায়ক একটি এই দাবানল। এক কোটিরও অধিক পশুপাখি এই দাবানলে প্রাণ হারিয়েছে। অনেক মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাই আমি টুর্নামেন্টের শুরুতেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম এই টুর্নামেন্টে যত প্রাইজমানি পাব তার সব দান করে দেব। তা ছাড়া এই টুর্নামেন্টে যে ড্রেসগুলো পরে আমি খেলেছি সেগুলোও নিলামে বিক্রির জন্য পাঠিয়ে দেব। এই ড্রেসগুলো বিক্রি থেকে আয় হওয়া টাকাও দান করে দেব’।

এমএইচ