নির্মিত হলেও আসেনি প্রেক্ষাগৃহে

আগের সংবাদ

ভাষা সৈনিক-মুক্তিযোদ্ধা আহমেদ আলী আর নেই

পরের সংবাদ

ওমানের সুলতানের মৃত্যু

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ১১, ২০২০ , ৯:৪৭ পূর্বাহ্ণ

কোলন ক্যান্সার ও বার্ধক্যজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে ওমানের শাসক সুলতান কাবুস বিন সাইদ আল সাইদ শুক্রবার সন্ধ্যায় মারা গেছেন। দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের বরাত দিয়ে শনিবার (১১ জানয়ারি) ভোরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।মৃত্যুর সময় তার বয়স হয়েছিল ৭৯ বছর। তার মৃত্যুতে  দেশটিতে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করা হয়েছে। জার্মানি ও বেলজিয়ামে চিকিৎসা শেষে সম্প্রতি রাজধানী মাস্কটে ফিরেছিলেন সুলতান কাবুস বিন সাইদ।

আল জাজিরা জানিয়েছে, ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নতুন সুলতানের মনোনয়নের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে রাজ পরিবার।

সুলতান কাবুস বিন সাইদের কোনো সন্তান বা ভাই নেই। উত্তরাধিকার কে হবেন সেই ঘোষণা তিনি দেননি। নিকটাত্মীয় হিসেবে আছেন তার চাচাত ভাইয়েরা। ফলে তার উত্তরাধিকারী কে হবেন তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। তবে ২০১১ সালে উত্তরাধিকার নির্ধারণের প্রক্রিয়ায় সংশোধনী আনেন কাবুস। এতে বলা হয়েছে, রাজপরিবারে কোনো বিরোধ দেখা দিলে সুলতানের নিয়োগকৃত শীর্ষ পাঁচ কর্মকর্তার একটি কাউন্সিল নতুন সুলতান নির্বাচনের প্রক্রিয়ায় সংযুক্ত হবেন।

ওমানের আইন অনুযায়ী রাজ পরিবার যদি নতুন সুলতান মনোনয়নে সম্মত হতে ব্যর্থ হয় তাহলে কাবুসের লিখে রেখে যাওয়া দুটি সিল করা চিঠিতে যে ব্যক্তির নাম থাকবে তিনিই শাসকের দায়িত্ব পাবেন।

ব্রিটেনের সহায়তায় ১৯৭০ সালে এক রক্তপাতহীন অভ্যুত্থানে বাবা সাইদ বিন তৈমুরকে উৎখাত করে ওমানের ক্ষমতা নেন কাবুস বিন সাইদ। আরবের দীর্ঘতম শাসক থাকার সময়ে তিনি বিচ্ছিন্ন আর অবকাঠামোহীন ওমানকে আধুনিক রাষ্ট্রে পরিণত করেছেন।

এমএইচ