এবার ইরাকের ওপর অবরোধের হুমকি

আগের সংবাদ

ই-পাসপোর্ট চালু হচ্ছে ২২ জানুয়ারি

পরের সংবাদ

উন্নয়ন প্রকল্প পরিকল্পিতভাবে বাস্তবায়ন হচ্ছে

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৬, ২০২০ , ৬:০২ অপরাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ৬, ২০২০ , ৬:০২ অপরাহ্ণ

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, প্রয়োজনীয়তার ভিত্তিতে উন্নয়ন প্রকল্প নেয়া হচ্ছে এবং পরিকল্পিতভাবে তা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার এমনভাবে উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন দিচ্ছে যাতে সারাদেশে সমভাবে উন্নয়ন হয়। প্রকল্পগুলোর বাস্তবায়ন যথাযথভাবে হচ্ছে কিনা, সে ব্যাপারে আমরা সচেতন বলেই আজকের পরিদর্শন কর্মসূচির আয়োজন।

সোমবার (৬ ডিসেম্বর) সকালে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন দুটি সেতুর নির্মাণ কাজ পরিদর্শন শেষে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, রূপগঞ্জে রাস্তবায়নাধীন এই ব্রিজ দুটি বর্তমান গণতান্ত্রিক সরকারের গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রতিশ্রুতির সফল বাস্তবায়ন। এর মাধ্যমে এলাকার জনসাধারণের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন হবে এবং তারা দেশের অর্থনীতিতে মূল্যবান অবদান রাখতে পারবে।নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এবং এলজিইডি’র প্রধান প্রকৌশলী সুশংকর চন্দ্র আচার্য্য।

নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ উপজেলার বালু নদীর উপর ৩২০ মিটার (মূল ব্রিজ ১৫০ মিটার + ১৭০ মিটার ভায়াডাক্ট) ডবল লেন ব্রীজটির কাজ সমাপ্ত হবে ২০২১ সালে। “পল্লী সড়কে গুরুত্বপূর্ণ সেতু নির্মাণ” শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ২০১৮ সালে নির্মাণ কাজ শুরু হওয়া উক্ত ব্রীজটি চালু হলে রূপগঞ্জ উপজেলা হেড কোয়ার্টার, পূর্বাচল, জলসিড়ি আবাসন প্রকল্পকে ঢাকার খিলক্ষেত এবং এয়ারপোর্টের সাথে সংযোগ স্থাপন করবে।

রূপগঞ্জ উপজেলার মুড়াপাড়ায় শীতলক্ষ্যা নদীর ওপর ৫৭৬ মিটার দীর্ঘ পিসি গার্ডার ব্রিজটির নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৬ সালে এবং সমাপ্ত হবে ২০২০ সালের জুন মাসে। “উপজেলা এবং ইউনিয়ন সড়কে দীর্ঘ সেতু নির্মাণ” প্রকল্পের আওতায় প্রায় ৭৪ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ব্রীজটি শীঘ্রই প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক উদ্বোধন করা হবে। এই ব্রীজটি চালু হলে রূপগঞ্জ ও নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা, নরসিংদী জেলার পলাশ উপজেলা এবং গাজীপুর জেলার অংশ বিশেষের বিরাট জনগোষ্ঠী রাজধানী ঢাকা এবং শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের সাথে যাতায়াত করতে পারবে। পরে মন্ত্রী নারায়ণগঞ্জ জেলার তারাব পৌরসভা পরিদর্শন করেন এবং পৌরসভার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম সম্পর্কে খোঁজ খবর নেন।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়