চট্টগ্রাম যাচ্ছে বিপিএল

আগের সংবাদ

নারীর প্রজনন স্বাস্থ্য সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে

পরের সংবাদ

মাশরাফি-আফ্রিদি স্বরূপে ফেরার অপেক্ষায়

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯ , ২:৪৯ অপরাহ্ণ

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে এবার দেশি-বিদেশি তারকা ক্রিকেটার নিয়ে বেশ শক্তিশালী দল গড়েছে ঢাকা প্লাটুন। কিন্তু তবুও গত বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) নিজেদের প্রথম ম্যাচে রাজশাহী রয়্যালসের বিপক্ষে ৯ উইকেটে হেরেছে ঢাকা। এরপর দ্বিতীয় ম্যাচে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সকে ২০ রানে হারিয়েছে মাশরাফি বিন মর্তুজা বাহিনী। কিন্তু দুই ম্যাচে ঢাকার দলপতি বল হাতে কোনো চমক দেখাতে পারেননি। মাশরাফি প্রথম ম্যাচে উইকেট শিকারে ব্যর্থ হলেও দ্বিতীয় ম্যাচে ২৭ রানে ১টি উইকেট নিয়েছেন। এ ছাড়া এবার ঢাকা দলে খেলছেন বুমবুম খ্যাত পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি। তিনিও ব্যাট-বল হাতে এবার বিপিএলে নামের সুবিচার করতে পারেনি। ব্যাট হাতে প্রথম ম্যাচে রাজশাহী বিপক্ষে শূন্য ও দ্বিতীয় মাচে ৪ রান তুলেছেন।

এমনকি বল হাতেও দুই ম্যাচে আফ্রিদি কোনো ভেল্কি দেখাতে পারেনি। যেহেতু মাশরাফি ও আফ্রিদি দুজনেই বেশ অজ্ঞিত ক্রিকেটার তাই স্বরূপে ফেরার অপেক্ষায় মরিয়া হয়ে আছেন।
গতকল ঢাকায় বঙ্গবন্ধু বিপিএলের প্রথম পর্ব শেষ হয়েছে। চট্টগ্রামে দ্বিতীয় পর্ব শুরু হবে ১৭ ডিসেম্বর। নিজদের চতুর্থ ম্যাচে ঢাকা প্লাটুনের মাশরাফি-আফ্রিদির দুর্দান্ত পাফরম্যান্স দেখার জন্য অধির অপেক্ষায় আছেন ভক্তরা। ঢাকার দলপতি মাশরাফিকে বলা হয় দলের বোলিং আক্রমণের প্রাণ ভোমরা। তিনি মাঠে খেলেন নিজের শতভাগ উজাড় করে। এমনকি জীবনের চেয়েও বেশি ভালোবাসেন ক্রিকেট। বারবার বড় ধরনের ইনজুরিতে পড়ে থাকতে হয়েছে মাঠের বাইরে। আবার ফর্ম নিয়ে ফিরেও আসেন সগৌরবে। মাশরাফি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নিয়েছেন প্রায় আড়াই বছর আগে। টেস্ট খেলেন না দশ বছর ধরে। এমনকি ওয়ানডে ক্রিকেটটাও খেলেছেন সবশেষ দ্বাদশ ওয়ানডে বিশ্বকাপে। ছয় মাসের বিরতির পর

এবারের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) দিয়েই ফিরেছেন ক্রিকেট মাঠে। রাজশাহী রয়্যালসের বিপক্ষে শুরুটা অবশ্য ভালো হয়নি মাশরাফির ঢাকা প্লাটুনের। তাই এমন ফলাফলের পর দল হিসেবে সামনের ম্যাচগুলোতে ঘুরে দাঁড়ানোর দিকেই বেশি মনোযোগ মাশরাফির। ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সের ব্যাপারে বিপিএলে তেমন কোনো লক্ষ্য নির্ধারণ করেননি তিনি। তবে টুর্নামেন্টের সবশেষ আসরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২২ উইকেট শিকার করেছিলেন মাশরাফি। আসন্ন ম্যাচগুলো স্বরূপে ফিরতে মরিয়া হয়ে আছেন তিনি।

এ ছাড়া টি-টোয়েন্টি ফরমেটে চার-ছক্কার ফোয়ারা ছোটাতে ওস্তাদ শহিদ আফ্রিদি। তিনি ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণে ছক্কা হাঁকানোর রেকর্ডে ক্রিস গেইলের পরেই আছেন। এমনকি তার বোলিংয়ের ভেল্কিতে কুপোকাত করে দিতে পারেন বিশ্বের নামি দামি অনেক ব্যাটসম্যানকে। কিন্তু বঙ্গবন্ধু বিপিএলে ব্যাটিং-বোলিং কোনো বিভাগেই নিজের দাপট দেখাতে পারছেন না। তবে বিপিএলে চট্টগাম পর্বে নিজের স্বরূপে মাঠ দাপিয়ে বেড়াবেন বুমবুম খ্যাত শহিদ আফ্রিদি এই প্রত্যাশা সবার।

এসআর