বেতাগীতে আমন ধানের বাম্পার ফলন, দামের শঙ্কায় কৃষক

আগের সংবাদ

ধর্ষণকারীকে প্রকাশ্যে পিটিয়ে মারা উচিত

পরের সংবাদ

যে কারণে গর্বিত ফেরদৌস

বিনোদন প্রতিবেদক :

প্রকাশিত হয়েছে: ডিসেম্বর ৩, ২০১৯ , ১:১৭ অপরাহ্ণ

২০১৮ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার আবারো পেলেন ফেরদৌস আহমেদ। আগামী ৮ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত থেকে তিনি এই সম্মাননা গ্রহণ করবেন। ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ সিনেমাতে অনবদ্য অভিনয় করে দুই দশক আগে প্রথমবারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হয়েছিলেন ফেরদৌস। পরবর্তী সময় আরো তিনটি সিনেমাতে অনবদ্য অভিনয়ের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন। পঞ্চমবারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়ে গর্বিত ফেরদৌস। সাইফুল ইসলাম মান্নু পরিচালিত অটিজমের ওপর নির্মিত পুত্র সিনেমাতে অভিনয়ের জন্য ফেরদৌস পঞ্চমবারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেলেন। ভীষণ উচ্ছ্বসিত ফেরদৌস বলেন, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার একজন শিল্পীর জন্য সর্বোচ্চ স্বীকৃতি। সর্বোচ্চ এই স্বীকৃতি বারবার পাওয়া একজন শিল্পীর জন্য অবশ্যই সৌভাগ্যের এবং গর্বের ব্যাপার। আগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেলে আমার বেশি খুশি লাগতো। আর এখন আমার দুই মেয়ে সবচেয়ে বেশি খুশি হয়। ধন্যবাদ পুত্রের পুরো টিমকে অটিজম বিষয়টিকে উপজীব্য করে সিনেমাটি নির্মাণ করে তা দর্শকের সামনে তুলে ধরা জন্য। আমি সবসময়ই সমাজ সচেতনতামূলক চলচ্চিত্রে কাজ করে এসেছি। দেখা যাচ্ছে যে আমি যতগুলো সিনেমার জন্য পুরস্কার পেয়েছি সবই কোনো না কোনোভাবে সমাজ সচেতনতামূলক চলচ্চিত্র। সবসময়ই আমি দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য কাজে লাগে এমন সিনেমা করেছি। তবে কিছুতো বিনোদনমূলক ছিলই। আগামীতে আরো পুরস্কার চাই এটা সত্যিই। তবে পুরস্কারের চেয়ে দর্শকের ভালোবাসাটাই আমার কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। কারণ তাদের কারণেই আমি আজকের ফেরদৌস। তো সেই ভালোবাসাটাই চাই সারাজীবন। বর্তমানে তিনি ‘গাঙচিল’ ও ‘জ্যাম’ সিনেমার শুটিং নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। এ ছাড়াও মাহমুদ দিদারের ‘বিউটি সার্কাস’ সিনেমা ও অরণ্য পলাশের ‘গন্তব্য’ সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। উল্লেখ্য, ফেরদৌস ‘গঙ্গাযাত্রা’, ‘এককাপ চা’, ‘কুসুম কুসুম প্রেম’ সিনেমার জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভ‚ষিত হয়েছিলেন।

ডিসি
বিষয়: