রাজনীতির মঞ্চে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার নামে স্লোগান!

আগের সংবাদ

এসএ গেমসের প্রথম দিনেই ১৬ পদক

পরের সংবাদ

লায়নের ঘূর্ণিতে কুপোকাত পাকিস্তান

খেলা ডেস্ক

প্রকাশিত হয়েছে: ডিসেম্বর ২, ২০১৯ , ১০:৪৬ অপরাহ্ণ

ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে ব্যাট হাতে ওয়ার্নার-স্মিথরা জয়ের মঞ্চ প্রস্তুত করে রেখে ছিল। গতকাল বল হাতে বাকি কাজ সেরেছে অজি অফ স্পিনার নাথান লায়ন। অ্যাডিলেড ওভালে দিবা-রাত্রির টেস্ট ম্যাচটিতে অন্তত ইনিংস পরাজয় এড়ানোর লড়াইটা দারুণ করেছিল পাকিস্তান। কিন্তু নাথান লায়নের ঘূর্ণিতে ২৩৯ রানে অলআউট হয়েছে আজহার আলির বাহিনী।

বল হাতে দুর্দান্ত নৈপুণ্য প্রদর্শন করে ৫ উইকেট শিকার করেছেন এ অজি অফ স্পিনার। পাকিস্তানের বিপক্ষে ইনিংস ও ৪৮ রানে জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। দুই ম্যাচের সিরিজ জিতে নিয়েছে ২-০ ব্যবধানে। সিরিজের আগের টেস্টে অজিরা জিতেছিল ইনিংস ও ৫ রানে। এ ছাড়া অপরাজিত ৩৩৫ রানের অনন্য ইনিংসের সুবাদে ম্যাচের সেরা ও দুই টেস্টে ৪৮৯ রান করে সিরিজের সেরা খেলোয়াড় পুরস্কার পেয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নার।

গতকাল সফরকারীরা হার এড়ানোর লক্ষ্যে দলকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন শান মাসুদ ও আসাদ শফিক। দুজনের জুটি পেরিয়ে যায় শতরান। সেই প্রতিরোধ ভাঙেন লায়ন। ফিরিয়ে দেন মাসুদকে। ৬৮ রানে বেরিয়ে এসে খেলতে গিয়ে সহজ ক্যাচ দেন তিনি। পরে ৫৭ রানে শফিককেও ফেরান লায়ন। তার অফ স্পিনের ঘূর্ণিতে পাকিস্তান লড়াইয়ের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছে। সব মিলিয়ে ক্যারিয়ারে ১৬তম ৫ উইকেট শিকারের কীর্তি গড়েছেন লায়ন। তিনি অ্যাডিলেডে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের তালিকায় শেন ওয়ার্নের পরে দ্বিতীয় স্থানে আছেন। দুর্দান্ত স্পিনার ওয়ার্ন নিয়েছেন ৫৬ উইকেট। লায়নের শিকার ৫০টি।

এর আগে প্রথম ইনিংসে ডেভিড ওয়ার্নারের অপরাজিত ৩৩৫ আর মার্নাস লেবুচানের ১৬২ রানের ওপর ভর করে অস্ট্রেলিয়া তোলে ৫৮৯ রান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানরা আসা-যাওয়ার মিছিলে যোগ দেন। প্রথম ইনিংস বল হাতে ঝড় তুলেছেন মিচেল স্টার্ক। একাই শিকার করেন পাকিস্তানের ৬ ব্যাটসম্যানকে। প্যাট কামিন্স নেন ৩টি উইকেট আর বাকি একটি উইকেট ওঠে জশ হ্যাজেলউডের ঝুলিতে।

এরপর ফলোঅনে পড়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে পাকিস্তান। অবশ্য ভাগ্য বদলায়নি সফরকারী ব্যাটসম্যানদের। দলীয় রান ২০ হতেই টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান আবারো ফেরেন সাজঘরে। এরপর অবশ্য আসাদ শফিকের সঙ্গে জুটি গড়ে শান মাসুদ গড়েন ১০৩ রানের জুটি। তাতেই এক সময় ইনিংস পরাজয় এড়ানোর স্বপ্ন দেখছিল পাকিস্তান। তবে নাথান লায়নের ঘূর্ণিতে তা আর সম্ভব হয়নি।