চাটমোহরে নবাগত ইউএনওর সাথে সাংবাদিকদের মত বিনিময়

আগের সংবাদ

সিসি ক্যামেরা বসিয়েও অনিয়ম রুখতে পারছি না: প্রধান বিচারপতি

পরের সংবাদ

অসাধু ব্যবসায়ীরা জনগণকে জিম্মি করতে চায়: শিল্পমন্ত্রী

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: ডিসেম্বর ২, ২০১৯ , ১:২২ অপরাহ্ণ

কিছু অসাধু ব্যাসায়ী বেশি মুনাফার জন্য জনগণকে জিম্মি করে ব্যবসা করতে চায়। তবে এটা আর হতে দেয়া যাবে না বলে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহুমুদ হুমায়ন। তিনি বলেন, সরকার ব্যবসা করবে না, সুযোগ তৈরী করে দেবে। আগামীতে চামড়া শিল্পে কোন অনিয়ম সহ্য করা হবে না।

সোমবার(২ডিসেম্বর) রাজধানীর পুরানা পল্টনে অর্থনৈতিক রিপোর্টারদের সংগঠন ইকোনোমিক রিপোর্টার্স ফোরামের (ইআরএফ ) কার্যালয়ে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য উন্নয়ন নীতিমালা ২০১৯ অবহিতকরণ বিষয়ক কর্মশালার উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন তিনি।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন সেক্টরের ব্যাবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে বিভিন্ন বাজারকে অশান্ত করে তুলছে। বড় বড় দেশে এ প্রবনতাগুলো নেই। কিন্তু আমাদের দেশে এগুলো বিদ্যমান। ব্যাবসায়ীদের অবশ্যই সুবিধা দিবে সরকার। এতে ব্যাবসায়ীরা লাভবান হবেন। গতকালও ঋণের সুদহার এক অংকে নামিয়ে আনার জন্য অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বসেছিলাম। কিন্তু জনগণকে জিম্মি করে অধিক মুনাফা করা তো ব্যাবসা নয়।

বক্তারা বলেন, দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম রফতানি খাত চামড়া। কিন্তু সম্ভাবনাময় এই খাতের নানাবিধ সংকট বিদ্যমান। আধুনিক চামড়া শিল্প নগরী এখনও অসম্পূর্ন, যা উৎপাদনকে বাধাগ্রস্ত করছে।তবে, গঠিত টাস্কফোর্স এবং চামড়া শিল্প নীতিমালা এই খাতের উন্নয়নে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে। বর্জ্য শোধনাগার, সিইটিপি ধীরে ধীরে কার্যকর হচ্ছে। এই শিল্পে শিশুশ্রমও বন্ধ করা হবে। এতে বিশ্ববাজারে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি বাড়বে। প্রসারিত হবে রফতানি বাজার।

শিল্প সচিব মো. আবদুল হালিমের সভাপতিত্বে এ সময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার, বাংলাদেশ ট্যানার্স এসোসিয়েনের চেয়ারম্যান মো. শাহিন আহমেদ, ইআরএফ সভাপতি সাইফুল ইসলাম দিলাল, সাধারণ সম্পাদক এস এম রাশিদুল ইসলাম প্রমুখ।