বিদ্যুৎ বিভাগের ৩৮০ টি গাড়ি চালায় কারা ?

আগের সংবাদ

প্রশাসনের হস্তক্ষেপে লবনের বাজার নিয়ন্ত্রণে

পরের সংবাদ

দেড়মাস পর লোকমানের বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিং মামলা

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: নভেম্বর ১৯, ২০১৯ , ৯:৩৫ অপরাহ্ণ

প্রাথমিক তদন্তে বিদেশে টাকা পাচারের আলামত পাওয়ায় মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেডের ডিরেক্টর ইনচার্জ ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক লোকমান হোসেন ভূইয়ার বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিং মামলা করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) দুপুরে মতিঝিল থানায় এ মামলাটি করা হয়। সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম (ইকোনমিক ক্রাইম স্কোয়ার্ড) শাখার বিষেশ পুলিশ সুপার মোস্তফা কামাল ভোরের কাগজকে বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে মোহামেডান ক্লাবের ডিরেক্টর ইনচার্জ লোকমানকে গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাতে তেজগাঁওয়ের মণিপুরিপাড়ার বাসা থেকে চার বোতল বিদেশি মদসহ গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। র‌্যাব-২-এর অধিনায়ক আশিক বিল্লাহ সে সময় সাংবাদিকদের বলেন, লোকমান মোহামেডান ক্লাবের একটি অংশে ক্যাসিনো ভাড়া দিয়ে ৪১ কোটি টাকা আয় করেছেন। সেই টাকা অস্ট্রেলিয়ার ব্যাংকে জমা করেছেন। তার ছেলে অস্ট্রেলিয়ায় থাকে। তিনি প্রায়ই ওই দেশে যান ও সেখানকার দুটি ব্যাংকে টাকা জমা রাখেন। এই তথ্য প্রকাশের পরেও লোকমান হোসেন ভূঁইয়ার নামে তেজগাঁও থানায় টাকা পাচারের অভিযোগে না করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে র‌্যাব মামলা করে।

মামলার বিষয়ে সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম (ইকোনমিক ক্রাইম স্কোয়ার্ড) শাখার বিষেশ পুলিশ সুপার মোস্তফা কামাল মঙ্গলবার বলেন, বিষয়টি দেশজুড়ে ব্যাপক অলোচনা সৃষ্টি করলে টাকা পাচারের বিষয়টি নিয়ে তদন্তে নামে সিআইডি। পরে উপপুলিশ পরিদর্শক মো. রায়হানুল ইসলাম সৈকত ও সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আবু সাঈদের অনুসন্ধানে ক্যাসিনোকাণ্ডসহ অপরাধের মাধ্যমে উপার্জিত অর্থ বিভিন্ন ব্যাংকে স্থানান্তর, নামে বেনামে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে রুপান্তর ও হস্তান্তরসহ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়। এরই প্রেক্ষিতে মতিঝিল থানায় মানিলন্ডারিং আইনে মামলা করা হয়। এখন সেই মামলানুযায়ী আরো তদন্ত করা হবে। পরে সেই তথ্যানুযায়ী অভিযোগপত্র তৈরী করে আদালতে জমা দেয়া হবে।

/এসএইচ