শোভন-রাব্বানীসহ ১০৫ জনের সম্পদের অনুসন্ধানে দুদক

আগের সংবাদ

ইবিতে ‘ডি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ, ২০ শতাংশ পাশ

পরের সংবাদ

বটতলা রঙ্গমেলায় স্পেনের

‘দিলেমমাস উইথ মাই ফ্লামেনকো টেলকোট’

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: নভেম্বর ১৮, ২০১৯ , ৯:৫৪ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় নাট্য সংগঠন বটতলা ‘নৃশংস নৈঃশব্দ ভেঙ্গে সুনন্দ সাহস জাগুক প্রাণে প্রাণে’প্রতিপাদ্যে ঢাকার নাট্যোমোদী দর্শকের জন্য তৃতীয়বারের মতো আয়োজন করেছে ‘বটতলা রঙ্গমেলা ২০১৯’ শিরোনামের বিশেষ আয়োজন। এ আয়োজনে রয়েছে দেশী-বিদেশী প্রখ্যাত নাট্য সংগঠনের নান্দনিক পরিবেশনা। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ের মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে উৎসবের তৃতীয় দিনে মঞ্চস্থ হলো বালেরিয়া তোহেরো নাবাস স্পেন এর নাট্যকার, নির্দেশক ও অভিনেতা মুন প্যালেস এর ‘দিলেমমাস উইথ মাই ফ্লামেনকো টেলকোট’ নাটকটি। ৭০ মিনিট সময়ব্যাপ্তি নাটকটিতে অভিনয় করেন বালেরিয়া তাহেরো নাবাস। একজন নৃত্যশিল্পী নারীর প্রতি সমাজের দৃষ্টিভঙ্গি এই নাটকের মূল উপজীব্য। গল্পটি ইসাবেল ভালদেরামা’র- যিনি ‘সোনালী নক্ষত্র’ নামে পরিচিত, তার জীবনকে কেন্দ্র করে তৈরী হয়েছে এ নাটক। তার অভিজ্ঞতা এবং নৃত্য ও তার জীবনের গুরুত্বপূর্ণ গল্প নিয়ে তৈরী এ নাটকে ফ্ল্যামেনকো নাচ নিয়ে কি করে ধীরে ধীরে বেড়ে উঠেছে তা বলা হয়েছে। বটতলা রঙ্গমেলায় তৃতীয় আয়োজন শুরু সন্ধ্যা ৬ টায়। উৎসবের নাদিম মঞ্চে এদিন জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ের রঙ্গভূমি পরিবেশন করে নাটক ‘আয়না বিবির পালা’। লোক আঙ্গিকের এই নাটকটি লিখেছেন মোফাজ্জল হায়দার চৌধুরী, নির্দেশনা দিয়েছেন মাসফিকুল হাসান টনি। নাটকের পরিবেশনার পর নির্দেশকের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন থিয়েটার পত্রিকা ‘ক্ষ্যাপা’র সম্পাদক পাভেল রহমান। এরপর সন্ধ্যা সাতটায় রঙ্গমঞ্চের মূল মিলনায়তনে  ¯েপনের মুন প্যালেস নাটক ‘ডিলেমাস উইথ মাই ফ্লামেনকো টেইলকোট’ মঞ্চস্থ করে। নাটকের প্রদর্শনীর পর মঞ্চের নেপথ্য শিল্পীর সম্মাননা জানানো হয় আলোক সহযোগী শামীমুর রহমানকে। সবশেষে নাট্যকার, নির্দেশক ও অভিনেত্রী বালেরিয়া তাহেরো নাবাস দর্শকের সঙ্গে মুক্ত আড্ডায় অংশ নেন।

বটতলার প্রধান নির্বাহী এবং এই আয়োজনের সদস্য সচিব মোহাম্মদ আলী হায়দার জানান ‘নৃশংস নৈঃশব্দ ভেঙ্গে সুনন্দ সাহস জাগুক প্রাণে প্রাণে এখন সময় যূথতার, মেলবন্ধনের : প্রকৃতিতে-মানুষে, মানুষে-মানুষে, দেশে দেশে ঐক্যতান বাজলেই কেবল মানবতা আর ধরিত্রীর প্রাণভোমরা একসঙ্গে টিকে যাবে- জিতে যাবে শুভবোধ! জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে হালের সম্মুখযোদ্ধা কিশোর প্রাণেরা যেমন করে ভেঙেছে নৃশংস নৈঃশব্দ তেমনি তাদের সাহসে সাহস মিলিয়ে বিশ্বের পক্ষে, প্রাণের পক্ষে দাঁড়াবার সুনন্দ সাহস চাই আজ। আজকের পথ একটাই : উচ্চে তুলে শির-কণ্ঠে দিয়ে শান সৃজনে-আনন্দে আমরা ফেরাবই ধ্বংস থেকে সৃষ্টির পথে : প্রাণে প্রাণ মেলাবোই গোলকের সব প্রান্ত ছুঁয়ে।
আজ মঙ্গলবার রঙ্গমেলার চতুর্থ দিনের আয়োজনে সন্ধ্যা ৬টায় নাদিম মঞ্চে সংগীত পরিবেশন করবে গানের দল ‘সমগীত’। এরপর সন্ধ্যা সাতটায় নেপালের আরোহণ থিয়েটার মঞ্চস্থ করবে নাটক ‘৪.৪৮ সাইকোসিস’। এদিন নেপথ্যশিল্পীর সম্মাননা জানানো হবে রূপসজ্জাশিল্পী আলী বাবুলকে। রঙ্গমেলার উদযাপন পর্ষদের সদস্য সচিব মোহাম্মদ আলী হায়দার বলেন, ‘মোহাম্মদপুর, ধানমণ্ডি, মিরপুর, শ্যামলি, আগারগাঁও এলাকার মানুষেরা আসছেন রঙ্গমেলায়। অনেক নতুন দর্শক দেখছি, যারা নিয়মিত নাটক দেখেন না। রঙ্গমেলার মধ্য দিয়ে নতুন দর্শক তৈরি হচ্ছে।