দলে পরিবর্তনের পক্ষে ডমিঙ্গো

আগের সংবাদ

শিক্ষা সমাপনীতে বসছে আজ ২৯ লাখ শিক্ষার্থী

পরের সংবাদ

’বুলবুল’ ঠেকিয়ে ক্ষতবিক্ষত সুন্দরবন

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: নভেম্বর ১৬, ২০১৯ , ১০:৪৯ অপরাহ্ণ

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলকে নিয়ে চরম উৎকন্ঠায় ছিল দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষ তবে এবার লোকালয়ে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ অনেকটা কম হয়। ভারতে ১২০ কিলোমিটার গতিতে আঘাত করে ঘরবাড়ির ব্যাপক ক্ষতি করলেও বাংলাদেশে এসে অনেকটা দুর্বল হয়ে খুলনা অঞ্চলে আঘাত করে ঘূর্ণিঝড়টি ।

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ম্যানগ্রোভ বনের উপর দিয়ে নিজের গতিময়তা আর ধ্বংসক্ষমতা নিয়ে লোকালয়ে হানা দিতে না পারলেও সুন্দরবনকে লড়তে হয়েছে বুলবুরের সাথে । বুকপেতে দিয়ে ঘূর্ণিঝড় ঠেকিয়ে দিতে গিয়ে নিজের ক্ষতির পরিমাণটা কম হয়নি সুন্দরবনের। বন অধিদপ্তরের হিসাব মতে, ৪৫৮৯ টি গাছ উপড়ে পড়েছে ১০ নভেম্বরের এ ঝড়ে। যার আর্থিক বাজারমূল্য অর্ধকোটি টাকার উপরে। ঝড়ের প্রচন্ড বাতাসে গেওয়া, গড়ান, কেওড়া বাবলা ও মেহগনি ইত্যাদি গাছ নদীতে হেলে পড়লেও অক্ষত ছিল বনের পশুপাখিরা। তবে ছোটছোট গাছগুলো বড় হয়ে এ ক্ষতি প্রাকৃতিকভাবেই ঠিক হয়ে যাবে বলে মনে করছেন বনকর্মকর্তারা ।

ক্ষয়ক্ষতির হিসাব ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর কর্যালয়ে পঠানো হয়েছে। বিভিন্ন ফাড়িঁ, ওয়াচ টাওয়ার ও স্টেশনের জেটিসহ অবকাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় আপাতত পর্যটন ব্যবস্থা সীমিত থাকবে বলে জানান বন কর্মকর্তা মঈনুদ্দিন খাঁন । উল্লেখ্য, সুন্দবনে বাধাঁপ্রাপ্ত না হলে ঝড়ে ক্ষয়ক্ষতির পারমাণ বাড়তে পারতো বলে ধারণা বোদ্ধামহলের।

নকি/