ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের নজরদারি বাড়াতে হবে

আগের সংবাদ

একজন সৃজনশীল সুভাষ দত্ত

পরের সংবাদ

বানারীপাড়া ইউপি আ.লীগ

নতুন কমিটির বিরুদ্ধে সহস্রাধিক নেতাকর্মীর বিক্ষোভ

মো. সুজন মোল্লা

বানারীপাড়া প্রতিনিধি

প্রকাশিত হয়েছে: নভেম্বর ১৫, ২০১৯ , ৮:৩৪ অপরাহ্ণ

বরিশালের বানারীপাড়ায় বিশারকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদ্য নির্বাচিত কমিটিকে অবৈধ আখ্যা দিয়ে তা বাতিল করে পুনরায় কাউন্সিলের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) বিকাল ৫টায় বিশারকান্দি ইউনিয়নের চৌমোহনা বাজারের ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কার্যালয় থেকে সহস্রাধিক নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের অংশগ্রহনে শুরু হয়ে বিক্ষোভ মিছিলটি।

দলীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তৃতা করেন বিশারকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিদায়ী সভাপতি ওমর ফারুক, বিদায়ী যুগ্ম সম্পাদক আ. মজিদ হাওলাদার, বিদায়ী প্রচার সম্পাদক জাকির হোসেন বাহাদুর, ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ডা. ফরিদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মজিবর হোসেন, ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি রফিকুল ইসলাম মামুন, সাধারণ সম্পাদক মানিক লাল ভল্লব,৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি সুখদেব হালদার, সাধারণ সম্পাদক মতিন বিশ্বাস, ৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি অমর চন্দ্র মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ কুমার দাস,৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি জহিরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন প্রমুখ।

এছাড়াও মুঠোফোনে এ বিক্ষোভের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক উত্তম কুমার দাস বক্তৃতা করেন। বক্তারা অভিযোগ করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পাব্র্ত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ কমিটির আহবায়ক(মন্ত্রী) আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ এমপির নির্দেশনা ছিলো নব নির্বাচিত ৮টি ওয়ার্ডের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ কমিটি না হওয়া অপর ৪ নং ওয়ার্ডের পূর্বের কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনে ভোট প্রদান করতে পারবেন। কিন্তু উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির সেই নির্দেশনা অমান্য করে নব নির্বাচিত ৬ টি ওয়ার্ড ও ৩টি ওয়ার্ডের পূর্বের কমিটির সভাপতি ও সম্পাদককে ভোটার করে (কাউন্সিলর)

গত বুধবার (১৩ নভেম্বর) উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাওলাদ হোসেন সানার লবনসাড়া গ্রামের বাড়িতে বিশারকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে ভোট গ্রহণ করা হয়। এতে সভাপতি পদে বিশারকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শাহজাহান মিয়া সভাপতি ও ইউপি সদস্য জামাল পারভেজ সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। সভাপতি পদে অপর প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও বিদায়ী সভাপতি ওমর ফারুক, সভাপতি প্রার্থী সারা বুলু বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক পদে বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার দাস, আ.মজিদ হাওলাদার ও নিরঞ্জন মন্ডল পরাজিত হন।

সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ওমর ফারুক আরও অভিযোগ করেন গত ৮ নভেম্বর বিশারকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের পূর্ব নির্ধারিত সম্মেলনে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটিতে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের অনুমোদনের স্বাক্ষর না থাকার অজুহাত তুলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হঠাৎ করে সম্মেলন স্থল ত্যাগ করে বানারীপাড়ায় চলে যাওয়ায় ওই দিন সম্মেলন পণ্ড হয়ে যায়।

বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে সম্মেলনের প্রধান অতিথি স্থানীয় সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. শাহে আলম সম্মেলনে উপস্থিত হওয়ার কিছুক্ষন পূর্বে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সম্মেলন স্থল ত্যাগ করেন।

সম্মেলন না হওয়ায় উপস্থিত নেতা-কর্মীরা এসময় বিক্ষোভ করেন। ওই দিন সম্মেলনে গঠনতন্ত্র অনুযাযী ২৫৫ জন কাউন্সিলরের ভোট প্রদানের কথা ছিলো। পূর্ব পরিকল্পিত ও রহস্যজনকভাবে ওই দিনের কাউন্সিল পণ্ড করে দেওয়া হয় বলেও ওমর ফারুক অভিযোগ করেন।