ওঁর প্রাণশক্তি আমাকে স্পর্শ করত

আগের সংবাদ

অভিষেকে চতুর্থ মুমিনুল

পরের সংবাদ

শুরুটা ভালো হলো না টাইগারদের

খেলা প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: নভেম্বর ১৪, ২০১৯ , ১০:৩১ অপরাহ্ণ

ইন্দোরের হালকার স্টেডিয়ামে স্পিনাররা ঘূর্ণি দিয়ে প্রতিপক্ষকে কাবু করে দেবেন। বাংলাদেশ ও ভারত মাঠে নামার আগে এমন কথাই শোনা গেছে। শুধু শোনা কথা নয়, অতীত পরিসংখ্যানও বলে স্পিনাররাই এখানে রাজত্ব করেন। সে হিসেবে স্পিন বল মোকাবেলা করার প্রস্তুতিই বেশি নিয়েছিল বাংলাদেশ। ম্যাচ শুরুর দুদিন আগে মোহাম্মদ মিঠুনও জানিয়েছিলেন সে কথা। কিন্তু বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) হয়েছে তার উল্টো। সিরিজের প্রথম ম্যাচের প্রথম দিন টসে জিতে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। ম্যাচের আগের হিসাব-নিকাশ ভুল প্রমাণ করে স্পিনারদের বদলে ভারতীয় পেসারদের গতির কাছে পরাস্ত হয়েছে মুশফিক-মুমিনুলরা। বাংলাদেশ তার প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৫০ রান তুলতেই গুটিয়ে গেছে। ভারতের বিপক্ষে টসে জিতেও কেন বোলিং না নিয়ে মুমিনুল হক ব্যাটিং নিলেন সেই প্রশ্নের উত্তর অনেকেই খুঁজে বেড়াচ্ছেন। কারণ পিচের কন্ডিশন অনুযায়ী এটি বোলিং স্বর্গ ছিল।
বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেন মুশফিকুর রহিম। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৭ রান করেন অধিনায়ক মুমিনুল হক। বোলিংয়ে ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট তুলে নিয়েছেন মোহাম্মদ শামি। সমান দুটো করে উইকেট তুলে নিয়েছেন ইশান্ত শর্মা, উমেশ যাদব ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন। আর রান আউট করার মাধ্যমে অপর উইকেটটি তুলে নেয় ভারত। মানে পুরো ইনিংসে সাতটি উইকেটই বাংলাদেশ খোয়ায় পেসারদের হাতে। ইশান্ত শর্মা শুধু দুটো উইকেট তুলেই ক্ষান্ত থাকেননি। বাংলাদেশের রানের চাকাকেও কড়াকড়িভাবে চেপে রাখেন তিনি। ১২ ওভার বল করে ৬টিই করেন মেডেন ওভার।
এরপর ভারত তাদের ব্যাটিংয়ে নামলে দ্রুতই রোহিত শর্মাকে আউট করে দেন পেসার আবু জায়েদ রাহী। প্রথম দিন বাংলাদেশের পাওনা এতটুকুতেই শেষ। এরপর আবার ম্যাচের চালকের আসনটা নিজেদের কব্জায় নিয়ে নেন দুই ভারতীয় ব্যাটসম্যান মায়াঙ্ক আগারওয়াল ও চেতশ্বর পূজারা। দলীয় রানের খাতায় ৮৬ রান তুলে দিন শেষ করেন দুজন। তবে আগারওয়াল যখন ব্যক্তিগত ৩২ রানে ব্যাট করছিলেন তখন স্লিপে তার তুলে দেয়া ক্যাচ মিস করেন ইমরুল কায়েস। শেষ পর্যন্ত আগারওয়াল ৩৭ ও পূজারা ৪৩ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেন। প্রথম দিন শেষে বাংলাদেশের চেয়ে এখনো ৬৪ রানে পিছিয়ে আছে ভারত। হাতে রয়েছে আরো নয় উইকেট। এখন দেখার বিষয়, ভারত তাদের ইনিংসটিকে কত লম্বা করে। টেস্টে সাম্প্রতিক সময়ে ভারতের পাহাড় সমান রান করার বেশ কয়েকটি রেকর্ড রয়েছে।
এদিকে বৃহস্পতিবার এমন বাজে পারফরমেন্সের জন্য মানসিকভাবে পিছিয়ে থাকাকে দায়ী করেছেন অধিনায়ক মুমিনুল হক। দিন শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আমরা বিশ্বের প্রথম সারির বোলারদের বিপক্ষে খেলছি। তাই আমাদের মানসিকভাবে আরো শক্তিশালী থাকা দরকার ছিল। কিন্তু প্রথম দিন আমরা সেই দিক দিয়ে অনেক পিছিয়ে ছিলাম। এ ছাড়া টস ও পিচ নিয়েও কথা বলেন মুমিনুল। তিনি বলেন, টস জিতে যেই সিদ্ধান্তই নেয়া হোক না কেন, এমন পারফরমেন্স করলে এটি নিয়ে প্রশ্ন উঠবেই। তিনি আরো বলেন, আমি মনে করি না পিচ ভালো ব্যাটিং করার জন্য অযোগ্য ছিল। আসলে আমরাই ভালো খেলতে পারিনি।