নাঈমের বিদায়েই আশা হারায় টাইগাররা

আগের সংবাদ

নিয়মবহির্ভূত সুযোগ পেয়ে ব্যাংকিং খাতই দুর্বল হচ্ছে

পরের সংবাদ

ইতিহাস ছুঁয়েও গড়া হলো না টাইগারদের

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: নভেম্বর ১০, ২০১৯ , ১১:৫৫ অপরাহ্ণ

টি-টোয়েন্টির তিন ম্যাচের সিরিজে প্রথমবারের মতো ভারতকে তাদেরই মাটিতে হারানোর ইতিহাস গড়া হলো না টাইগারদের। তবে প্রথম ম্যাচে যে ইতিহাস ছুঁয়েই দিয়েছিল তাতে কোনো ভুল নেই। শেষ ম্যাচে টাইগারদের একেবারে ইতিহাস গড়ার নাগালে নিয়ে গিয়েছিল নাঈমের ফিফটি। তবে নাঈমের বিদায়ে ছিটকে পড়তে হলো টাইগারদের। তৃতীয় ম্যাচে টাইগারদের ৩০ রানে হারিয়ে ২-১ ইতিহাস সৃষ্টি করেনি, বরং সিরিজ জিতেছে ভারত।

টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশকে ১৭৫ রানের টার্গেট দেয় ভারত। ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ ৬২ রান করেন শিরিস আইয়ার। বোলিংয়ে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ দুটি করে উইকেট তুলে নেন শফিউল ইসলাম ও সৌম্য সরকার।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৯ ওভার ২ বলে ১৪৪ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশের ইনিংস। দশজনের মধ্যে রানের খাতা খোলার আগে আউট হয়েছেন সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম ও আফিফ হোসেন। বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ৮১ রান আসে ওপেনার মোহাম্মদ নাইমের ব্যাট থেকে। অন্যদিকে ভারতের হয়ে মাত্র ৭ রান খরচায় হ্যাট্রিকসহ ৬ উইকেট তুলে নেন পেসার দিপক চাহার।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে সেরা বোলিং ফিগার এখন এটি। বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে হেরেছিল রোহিত শর্মারা। কিন্তু টানা দুই ম্যাচে জিতে তারা ঘরের ট্রফি ঘরে রেখে দিল। এ নিয়ে সাতবারের মতো শেষ ম্যাচে বা সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে এসে সিরিজ জিতেছে ভারত। তাদের ক্রিকেটের ইতিহাসে শুধুমাত্র একবার সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে হেরেছিল তারা।

এদিকে আজকের ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে এক উইকেট তুলে নেয়ার মাধ্যমে তৃতীয় ভারতীয় বোলার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে পঞ্চাশ উইকেট তুলে নিয়েছেন স্পিনার যুবেন্দ্র চাহাল। তার আগে ভারতীয় বোলারদের মধ্যে পেসার জাসপ্রিত বুমরাহ ও স্পিনার রবিচন্দন অশ্বিন পঞ্চাশ উইকেট পেয়েছিলেন।