জুয়েলার্স সমিতির নির্বাচনী বাধা কাটলো

আগের সংবাদ

বাদল-খোকার মৃত্যুতে সংসদে শোক প্রস্তাব গৃহিত

পরের সংবাদ

পুত্রকে জেলে পাঠিয়ে পুত্রবধূকে হুমকি এমপি হিরুর

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি :

প্রকাশিত হয়েছে: নভেম্বর ৭, ২০১৯ , ৫:২০ অপরাহ্ণ

জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বরগুনা-২ আসনের সাবেক সাংসদ গোলাম সারওয়ার হিরুর দায়ের করা মামলায় বড় ছেলে গোলাম মোর্শেদ রানা এখন কারাগারে। এরপর মুঠোফোনে পুত্রবধূকেও জেল হাজতে পাঠানোর হুমকি দিয়েছেন সাংসদ হিরু।

ইতিমধ্যে পুত্রবধূ বেবীকে হুমকি দেয়ার একটি অডিও কল রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। ভাইরাল হওয়া অডিও কলে শোনা যায়, রানার স্ত্রী বেবী শ্বশুর হিরুকে বাড়িতে আসার জন্য বললে হিরু উত্তেজিত হয়ে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন। এক পর্যায়ে সাংসদ পুত্রবধূকে তার বাবার বাড়ি ময়মনসিংহে চলে যেতে বলেন। একই সময় অশালীন মন্তব্য করে হিরু বলেন, তোকে ছেলের সঙ্গে জেলে চালান দিব। “তুই” সেখানে গিয়ে নতুন স্বামী যোগাড় করে নিবি।

ভাইরাল হওয়া ঐ অডিও শুনে স্থানীয় লোকজনের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া শুরু হয়েছে। তারা বলছেন, সাংসদ মিথ্যা মামলা দিয়ে নিজের ছেলেকে জেল হাজতে পাঠিয়েছে। এখন আবার ছেলের বৌকেও জেল হাজতে পাঠানোর হুমকি দিচ্ছে।

পুত্রবধূ

এ বিষয়ে বিআরডিবি পাথরঘাটার সাবেক চেয়ারম্যান ইমাম হোসেন বাবুল বলেন, সমাজের প্রথম শ্রেণীর ব্যক্তি ও সাবেক সাংসদের পুত্র ও পুত্রবধূর সঙ্গে এমন আচরণ কাম্য নয়। হিরু একজন সামাজিক লোক হয়ে অসামাজিক আচরণ করে সমাজকে কলঙ্কিত করছেন। এর আগেও হিরুর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ রয়েছে।

সাবেক সাংসদ গোলাম সারওয়ার হিরু বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, অডিও কল রেকর্ডটি আমার না। আমি তাকে কখনো দেখিওনি তার সঙ্গে (পুত্রবূধু) কখনো কথাও হয়নি। তবে আমার সঙ্গে রানার জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ে ঝামেলা থাকায় থানায় মামলা করা হয়েছে ।

পাথরঘাটা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন বলেন, বুধবার (৬ নভেম্বর) সকালে মামলা করেছেন সাবেক সাংসদ হিরু। এর পরিপ্রেক্ষিতে সাংসদপুত্র গোলাম মোরশেদ রানাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠায়।