রিফাত হত্যা মামলা বিচারের জন্য প্রস্তুত

আগের সংবাদ

হরিজনপল্লীতে একঘরে ৮ জনের বাস!

পরের সংবাদ

কৃষি কাজে কৃষকলীগকে ভূমিকা রাখতে হবে

কাগজ প্রতিবেদক:

প্রকাশিত হয়েছে: নভেম্বর ৬, ২০১৯ , ১:৪৯ অপরাহ্ণ

কৃষি জমি নষ্ট করে শিল্পায়ন নয়, রাজধানী ঢাকার ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কৃষক লীগের সম্মেলনে এই আহ্বান জানান তিনি। নেতা-কর্মীদের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আর্দশ থেকে শিক্ষা নিয়ে আত্মত্যাগের রাজনীতি করার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

বুধবার (৬ নভেম্বর) কৃষক লীগের সম্মেলনে শেখ হাসিনা বলেন, স্বাধীনতার আগে কৃষকরা বঞ্চিত ছিল। এই বঞ্চনার হাত থেকে রক্ষা করতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষক লীগ গঠন করেন। কৃষকদের গুরুত্ব দিচ্ছি আমরা। এ সময় কৃষকদের উন্নয়নে ই-কৃষিসহ তার সরকারের পদক্ষেপ তুলে ধরেন। সরকারপ্রধান বলেন, একটি মানুষ‌ও যেন গৃহহারা না থাকেন এটি আমাদের অঙ্গীকার। খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছি, এবার লক্ষ্য পুষ্টি নিরাপত্তা। সরকারের অর্জন যেন কেউ নষ্ট না করতে পারে সেজন্য কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন তিনি।

তিনি বলেন, কৃষি কাজে কৃষকলীগের ভুমিকা থাকা প্রয়োজন। কৃষকলীগের কর্মকর্তাদের অন্তত ৩টি গাছ রোপনের নির্দেষ দেন তিনি। বিশ্বব্যাংক কৃষকদের ভর্তুকি দিতে বারণ করেছিল, আওয়ামী লীগ সরকার তা বহাল রেখেছে। তিনি আহ্বান করেন কৃষকের টাকা বিতরনে যেন অনিয়ম না হয়। রপ্তানিতে কৃষিপণ্যকে প্রাধান্য দিতে হবে। আশাব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের এক খন্ড কৃষিজমিও অনাবাদি থাকবে না। কৃষিজমি নষ্ট করে শিল্পায়ন নয়। তিনি বলেন, কৃষিকে যান্ত্রিকীকরণে কাজ করছে সরকার। যত্রতত্র ইন্ডাস্ট্রি করতে দেওয়া হবে না। কেউ ইন্ডাস্ট্রি করতে চাইলে ১০০ টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে করতে হবে।

এছাড়াও নিজের ফসল নিজে উৎপাদন করতে উৎসাহ দিতে কৃষকলীগকে আহ্বান জানান তিনি। হাওর এলাকায় কৃষকদের জন্য বীমা চালু করা হবে বলেও বলেন তিনি।

এর‌ আগে বেলা ১১টায় সম্মেলন স্থলে উপস্থিত হন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। এরপর জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন সংগঠনের সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লা ও সাধারণ সম্পাদক শামসুল হক রেজা। সম্মেলনে প্রকাশিত স্যুভেনিরের মোড়ক উন্মোচন করেন শেখ হাসিনা।

সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন- আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, কৃষক লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার শামসুল হক রেজা, সর্বভারতীয় কৃষাণ সভার সাধারণ সম্পাদক অতুল কুমার।