রাজধানীতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় কলেজছাত্রী নিহত

আগের সংবাদ

গঠনতন্ত্র সংশোধনে তৃণমূলে চিঠি দেয়া হয়েছে

পরের সংবাদ

শোষণ-বৈষম্যহীন বাংলাদেশই ছিল বঙ্গবন্ধুর লক্ষ্য: স্পিকার

প্রকাশিত হয়েছে: নভেম্বর ৪, ২০১৯ , ৮:৩০ অপরাহ্ণ | আপডেট: নভেম্বর ৪, ২০১৯, ৮:৩০ অপরাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক

শোষণ ও বৈষম্যহীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা এবং দেশের মানুষের উন্নত জীবন নিশ্চিত করাই ছিল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের লক্ষ্য। সে লক্ষ্য বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাজ করে চলেছেন বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

তিনি বলেন, সামাজিক নিরাপত্তা, সুদৃঢ় অর্থনীতির ওপর রাষ্ট্রকে গড়ে তুলতে শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন। উন্নয়নের মডেল হিসেবে বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় সক্ষম হয়েছেন তিনি।

সোমবার (৪ নভেম্বর) বিকালে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির মিলনায়তনে ৪৮ তম সংবিধান দিবসে বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক দর্শন ও ১৯৭২ এর সংবিধান শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আইন সহায়ক কমিটি-একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি সভার আয়োজন করে। আপিল বিভাগের সাবেক বিচারপতি মো. শামসুল হুদার সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন- বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিন।

সূচনা বক্তব্য রাখেন- ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির, আইন সহায়ক কমিটির সভাপতি খোন্দকার আবদুল মান্নান, ঢাকা আইনজীবী সমিতির সভাপতি গাজী শাহ আলম। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আইন সহায়ক কমিটির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আজহার উল্লাহ ভূঁইয়া।

শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, রাষ্ট্রের মূলনীতি সংবিধানে সন্নিবেশিত হয়। রাষ্ট্রের তিনটি স্তম্ভ তাদের ক্ষমতা প্রয়োগ করে থাকে সংবিধানের আলোকে। নির্বাহী, লেজিসলেটিভ ও বিচার বিভাগের ক্ষমতার পৃথকীকরণ সন্নিবেশিত থাকে, যাতে পারস্পরিক সৌহার্দ্য বজায় থাকে। শুধুমাত্র মূলনীতিই সংবিধানে থাকে না, আমাদের মূল্যবোধও থাকে।

অনুষ্ঠানে বক্তারা শোষনমুক্ত সমাজগঠনে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করতে সকলকে সমন্বিতভঅবে কাজ করার আহ্বান জানান। সেই সাথে দেশকে দুর্নীতিবাজ ও রাজাকারদের হাত থেকে মুক্ত করতে একযোগে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।