ইউটিউব ‘ভিউ’ বিচারে তারকা

আগের সংবাদ

নতুন আইনে প্রথম সাতদিন কোনো মামলা নয়

পরের সংবাদ

আমেরিকার চলচ্চিত্র উৎসবে বাংলা ফাইভ ব্যান্ডের ‘মনে করো’

প্রকাশিত হয়েছে: নভেম্বর ২, ২০১৯ , ৪:০০ অপরাহ্ণ | আপডেট: নভেম্বর ২, ২০১৯, ৪:০০ অপরাহ্ণ

Avatar

আমেরিকার ২২তম ‘ইন্ডি মেমফিস ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল’-এ নির্বাচিত হয়েছে বাংলা ফাইভ ব্যান্ডের জনপ্রিয় গান মনে করো’র মিউজিক ভিডিও। চলচ্চিত্রের উৎসব হলেও প্রতিবারের মতো এবারও উৎসব রাঙাতে ‘মিউজিক ভিডিও পার্টি’ বিভাগে প্রদর্শিত হতে যাচ্ছে সারা আমেরিকাসহ তিনটি দেশের নির্বাচিত মিউজিক ভিডিও।

এতে জার্মান শিল্পী ‘ইলেক্ট্রো হাফিজ’ এর মিউজিক ভিডিও ‘লুবোডিস্কা’, রাশিয়ান ব্যান্ড ‘লিটল বিগ’ এর ‘ফারাদেন্জা’র পাশাপাশি ‘বাংলা ফাইভ’ ব্যান্ডের গানটি নির্বাচিত হয়েছে।

ব্যান্ডটির প্রথম অ্যালবাম কনফিউশন-এ প্রকাশিত গানটির মিউজিক ভিডিওটি দেশেও দারুণ সমাদৃত হয়েছে। গানটির কথা ও সুর সিনা হাসানের, সাইন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এ ছিলেন অনিক আহম্মেদ, মিউজিক ভিডিও পরিচালনা করেন কারিশমা চৌধুরী, চিত্রগ্রহণে অমিত আশরাফ, প্রযোজনা করেন হিমেল তারিক। একটি মূল চরিত্রে অভিনয় করেন নৃত্যশিল্পী ও মডেল উপমা। ‘মনে করো’ গানটির অডিও ও ভিডিও দুটিই ইউটিউবে প্রকাশিত রয়েছে।

উৎসবের ভ্যানু ব্ল্যাক লজ-এ বাংলা ফাইভের ‘মনে করো’(ইমাজিন) প্রদর্শিত হবে আগামী ৩ নভেম্বর রাত ৯ টায়।

উৎসবে অংশগ্রহণ প্রসঙ্গে বাংলা ফাইভ ব্যান্ড এর পক্ষ থেকে সিনা হাসান বলেন, “বিবি কিং বা প্রিসলির জন্মভূমি মেমফিসের বুকে আমাদের গান বাজবে, সেখানে জিম জারমাউসের মতো মানুষ থাকবেন, বিশ্ব ব্যান্ডের সাম্প্রতিক হিসেবে এ আমাদের বিরাট প্রাপ্তি। তাছাড়া কারিশমা এদেশের তরুন নারী নির্মাতাদের একজন, তার জন্যও অভিজ্ঞতাটা সুখকর হবে।’

নির্মাতা কারিশমা বলেন, “দারুণ কিছু ঘটবে বলেই কখনো কখনও অঘটনগুলো অনিবার্য বলে মনে হয়। একটা যান্ত্রিক গোলযোগের জন্য আমরা আমাদের কিছু ফুটেজ হারিয়েছিলাম। এই দুর্ঘটনার পরপরই আমরা আমাদের স্বপ্ন আর ভাবনাগুলোর চিত্রায়নে আরো মরিয়া হয়ে উঠেছিলাম। স্বতঃস্ফূর্ত স্বপ্নকে নির্মাণের জন্য, ধারণকৃত একটা দৃশ্যের এরকম আকষ্মিক ধ্বংসকে এখন তো ভীষন আবশ্যিক ছিলো মনে হচ্ছে আমার। নির্মাণের সাথে জড়িত সকলকে এবং বিশেষ করে সেদিনের সেই দুর্ঘটনাকে জানাতে চাই আমার গভীর ভালোবাসা।”

জানা যায়, ‘ইন্ডি মেমফিস ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল’-এ আমেরিকার তরুন বিখ্যাত শিল্পী জেসিকা রে, সোফি স্ট্রস, এলিস হাসেন, ব্যান্ড স্যাভেজ আফটার মিডনাইট, এশিয়ান সি সহ ১২ জন শিল্পীর মিউজিক ভিডিও প্রদর্শিত হতে যাচ্ছে।

এবারের উৎসবের অন্যতম মূল আকর্ষন হলো আমেরিকার বিখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা জিম জারমাউসের দুটি সেশন, আমেরিকার বিখ্যাত অভিনেত্রী ও পরিচালক সারা মিলার ড্রাইভারের জীবনের সকল চলচ্চিত্রকর্মের রেট্রোস্পেক্টিভ এবং উপস্থিত থাকবেন তিনি নিজেই।

এছাড়াও থাকবে সিক্রেট চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, নতুন নির্মাতাদের জন্য পিচিং সেশন, রেগুলার স্বল্পদৈর্ঘ্য ও পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রতিযোগীতা, পুরস্কার সেশন ও প্যানেল টকস।

তবে এতো সিনেমার মেলার ভীড়ে শিল্পের খোরাকের আনন্দটা বাড়িয়ে দিতে এই মিউজিক ভিডিও পার্টি। এতে শুধু ইন্ডিপেন্ডেন্ট চলচ্চিত্র নির্মাতারাই নন সেই সাথে উপকৃত হন মিউজিশিয়ানরাও।

প্রসঙ্গত, সমালোচক মহলে প্রথম ইন্ডিপেন্ডেন্ট অ্যালবাম ‘লাস্টবেঞ্চ’ এর ‘লেফট রাইট’, ‘লাস্টবেঞ্চ’, ‘আমি ছুটে যাই’ ইত্যাদি গানের ব্যাপক গ্রহণযোগ্যতা পাওয়ার পর ২ বছর ধরে ব্যান্ড গড়ে তোলেন সিনা হাসান, গিটারিস্ট আহনাফ অনিক, বেজিস্ট রাফিন মাহমুদ ও ড্রামার আদনান রুশদী।

এবছরের শুরুতে তাদের প্রথম এলবাম ‘কনফিউশন’ প্রকাশিত হয়। মূলত ‘আর্ট ও ফাঙ্ক রক ঘরানার এ এলবামের টাইটেল ট্রাক ‘কনফিউশন’ গানটি মূলধারা থেকে আন্ডারগ্রাউন্ড সব শ্রোতা- সমালোচক মহলেই সমাদৃত হচ্ছে। এছাড়াও ‘সন্ধ্যা নামায়ে রাখি’ গানটি বাংলা গানের ইউটিউব ইতিহাসে সবচেয়ে বেশী পরিমানে চ্যানেল থেকে আপলোড হয় এবং সবমিলে ২০ মিলিয়ন ভিউ ছাড়িয়ে যায়।

ইতোমধ্যেই বিভিন্ন এফ এম ও অ্যাপের টপচার্টে বাজছে বাংলা ফাইভের গান। প্রবাসীদের মধ্যে মধ্যপ্রাচ্য, ইউ এস এ, কোরিয়া ও অস্ট্রেলিয়া থেকেও প্রচুর পরিমানে শ্রোতা নিয়মিত যুক্ত হচ্ছেন তাদের গানে। বাংলাদেশের পাশাপাশি ইতোমধ্যেই ভারতে ও নেপালেও কনসার্ট করেছে বাংলা ফাইভ ব্যান্ড।

ব্যান্ডটি জানায়, বছর শেষে প্রকাশিত হতে যাচ্ছে ‘বাবা মায়ের পকেট’ শিরোনামের একটি গানের মিউজিক ভিডিও।