কদমতলীতে রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান

আগের সংবাদ

এপ্রিলে ঢাকায় ডি-৮ সম্মেলন

পরের সংবাদ

বিশ্বশান্তির প্রতীক শ্রী চিন্ময়

প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ৩১, ২০১৯ , ৭:১৫ অপরাহ্ণ | আপডেট: অক্টোবর ৩১, ২০১৯, ৭:১৫ অপরাহ্ণ

Avatar

বিশ্বশান্তি ও মানবতার প্রতীক ছিলেন শ্রী চিন্ময়। বাংলাদেশের চট্যগ্রাম জেলায় ১৯৩১ সালে জন্ম গ্রহন করেন সাধক শ্রী চিন্ময়। পাশচাত্যের অকৃত্রিম সাধকদের সাথে তাঁর আধ্যাত্মিক জ্ঞান ভাগ করবার জন্যে ১৯৬৪ সালে নিউইয়র্কে পাড়ি দেন।

শ্রী চিন্ময় এর জীবন ছিল সীমাহীন সৃজনশীলতায় সম্মৃদ্ধ। সংগীত, কাব্য, চিত্রকলা, সাহিত্য এবং ক্রীড়ার মত জ্ঞান ও কর্মে বিস্তৃত সব ক্ষেত্রে তিনি বিপুল সৃষ্টির স্বাক্ষর রেখে গেছেন। বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী শ্রী চিন্ময় মানুষের অসীম সৃজনী শক্তিতে বিশ্বাস করতেন।

শ্রী চিন্ময় তের হাজার বাংলা ও আট হাজার ইংরেজী গান রচনা করেছেন। হাজার হাজার ছবি এঁকেছেন। শ্রী চিন্ময় ১৯৭০ সাল থেকে ২০০৭ এ পরলোক গমনের আগে পর্যন্ত জাতিসংঘের সদর দপ্তরে পিস মেডিটেশনের নেতৃত্ব দিয়েছেন।

বিশ্ব শান্তি ও মানবতার প্রতীক শ্রী চিন্ময় প্রবর্তিত প্রথম ‘পিস টর্চ বিয়ারার’ পুরস্কারটি নয় বারের অলিম্পিক স্বর্ণপদক এবং পিস রানের মুখপাত্র কার্ল লুইসকে দেয়া হয়েছিল। তারপর থেকে মিখাইল গর্বাচেভ, নেলসন ম্যান্ডেলা, মায়া অ্যাঞ্জেলোসহ বিশ্ববিখ্যাত ব্যক্তিরা পেয়েছেন। এছাড়াও পিস টর্চ অ্যাওয়ার্ডটি স্লোভেনিয়ার রাষ্ট্রপতি ড. ড্যানিলো টার্কে, তিমুর লেস্টের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ডা. মারি অ্যালকাতিরি, নিউইয়র্কের সংগীতজ্ঞ ফিলান্ট্রোপিস্ট এবং হিপ-হপ অগ্রগামী রাসেল সিমন্স, আমেরিকার ইতিহাসের সর্বাধিক জনপ্রিয় দূরত্বের দৌড়বিদ মেব কেফলেজিঘি এবং অন্যান্যদের জন্য প্রদান করা হয়েছে। যারা অন্যের সেবায় নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন।

সর্বশেষ বাংলাদেশের পতাকাবাহী প্রথম বিশ্বজয়ী নাজমুন নাহার ভূষিত হলেন আন্তর্জাতিক ‘পিস টর্চ অ্যাওয়ার্ড’ পদকে। নিউইয়র্ক সময় গত ২৭ অক্টোবর বিকেল তিনটায় ‘শ্রীচিন্ময় সেন্টার’ থেকে নাজমুন এ সম্মাননা জানানো হয়।