অভিষেক গানচিত্র ‌‘আছো নাকি বেশ’

আগের সংবাদ

কালকিনিতে ঐতিহ্যবাহী কুন্ডুবাড়ির মেলা শুরু 

পরের সংবাদ

২০২০ সালে হজক্যাম্পেই হবে ইমিগ্রেশন

প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ২৭, ২০১৯ , ৪:৩১ অপরাহ্ণ | আপডেট: অক্টোবর ২৭, ২০১৯, ৭:৪৩ অপরাহ্ণ

Avatar

২০২০ সালে মক্কা রুট ইনিসেয়টিভ এর আওতায় বাংলাদেশের সকল হজযাত্রীর ইমিগ্রেশন ঢাকার আশকোনা হজ ক্যাম্পে সম্পন্ন করা হবে । এ উদ্দ্যেশে হজ ক্যাম্প আশকোনা ঢাকা এর সম্প্রসারন ও সংস্কার কার্যক্রম শুরু করার নির্দেশ প্রদান করেছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আলহাজ এডভোকেট শেখ মোঃ আব্দুল্লাহ।

প্রতিমন্ত্রী আজ দুপুরে হজ ক্যাম্প সম্প্রসারন ও সংস্কার কার্যক্রম সংক্রান্ত সভায় সভাপতিত্বকালে সংশ্লিষ্টদের প্রতি এই নির্দেশ প্রদান করেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মানুষের অর্থনৈতিক সক্ষমতা বৃদ্ধির ফলে ২০০৯ সাল থেকে বাংলাদেশি হজযাত্রীর সংখ্যার ক্রমাগত বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০০৯ সালে যেখানে বাংলাদেশি হজযাত্রীর সংখ্যা ছিল ৫৮ হাজার ৬ শত ২৮ জন। ২০১৯ সালে হজযাত্রীর সংখ্যা ১ লক্ষ ২৬ হাজার ৯২৩ জনে বৃদ্ধি পায়। এ বছর রাজকীয় সৌদি সরকারের মক্কা রুট ইনিসেয়টিভ কর্মসূচির অধীনে প্রায় অর্ধেকে হজযাত্রী সৌদি আরব অংশের ইমিগ্রেশন জেদ্দার পরিবর্তে ঢাকায় সম্পন্ন করেছেন। ২০২০ সালে সকল হজযাত্রীকে এ কর্মসূচির অধীনে আনা হবে ইনশাআল্লাহ।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ভবিষ্যতে হজযাত্রীর সংখ্যা যেমন বৃদ্ধি পাবে একইসঙ্গে এ সংক্রান্ত কার্যক্রমও বৃদ্ধি পাবে। তাই এখন থেকে হজ ক্যাম্প সম্প্রসারণ ও সংস্কার সংক্রান্ত কার্যক্রম গ্রহণ করা প্রয়োজন। ২০১৯ সালে মোট ৩৬৬টি হজ ফ্লাইট পরিচালিত হয়। সৌদি এয়ারলাইন্স এর মাধ্যমে পরিচালিত হজযাত্রীদের মধ্যে যারা মক্কা রুট ইনিসেয়টিভ কর্মসূচির অধীনে হজ গমন করেছেন তাঁদেরকে লাগেজ ট্যাগ গ্রহণ ও ইমগ্রেশণ নিয়ে বিড়ম্বনার সম্মুখিন হতে হয়েছে। তাই ২০২০ সালের সকল হজযাত্রীদের বাংলাদেশ অংশের ইমিগ্রেশন হজ ক্যাম্পে করার পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়েছে।

সভায়  ধর্ম সচিব মোঃ আনিছুর রহমান, হজ অফিস, ঢাকা, সিভিল এভিয়েশন কতৃপক্ষ, পাসপোর্ট ও ইমিগ্রেশন অধিদফতর,  গণপূর্ত অধিদফতর, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, হজ্জ এজেন্সীজ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) আরো প্রতিনিধিগণ  উপস্থিত ছিলেন।