গ্রেটার নামে হলো গুবরে পোকার নাম

আগের সংবাদ

ঝুঁকি নিয়ে ভবনে রঙ, মই ফসকে মিস্ত্রীর মৃত্যু

পরের সংবাদ

মার্কিন অভিযানে আইএস প্রধান নিহত

প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ২৭, ২০১৯ , ১২:২৪ অপরাহ্ণ | আপডেট: অক্টোবর ২৭, ২০১৯, ২:১৬ অপরাহ্ণ

Avatar

মার্কিন বিশেষ বাহিনীর অভিযানে আইএস নেতা আবু বকর আল-বাগদাদি নিহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। সিরিয়ায় আইএসআইএসের সর্বশেষ ঘাঁটিত অভিযান চালানোর সময় তিনি নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন আমেরিকার এক কর্মকর্তা ।

পেন্টাগনের একটি সূত্র নিউজউইককে জানিয়েছে, বাগদাদির “মৃত্যুর বিষয়ে যাচাই করা হচ্ছে, তবে এটি এখনও নিশ্চিত নয়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর সিরিয়ায় সন্ত্রাস বিরোধী মিশনের নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে মার্কিন ওই প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা আরও জানিয়েছেন আইএস নেতা বাগদাদির অবস্থান শনাক্তের কাজটি করেছে দেশটির কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ। তারপর সেখানে অভিযান চালানো হয়।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে যে পালানোর কোনও পথ নেই তা বুঝতে পেরে আল-বাগদাদী একটি আত্মঘাতী বিস্ফোরণ ঘটান।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প রোববার সকাল ৯টায় গুরুত্বপূর্ণ এক ঘোষণা দেবেন বলে জানিয়েছেন প্রেসিডেন্টের কার্যালয় হোয়াইট হাউসের সহকারী প্রেস সেক্রেটারি হোগান গিডলে। এর আগে “সবেমাত্র খুব বড় কিছু ঘটেছে!” বলে টুইট করেন ট্রাম্প। তবে তিনি এ বিষয়ে আর কোনও বিবরণ দেননি।

একটি সামরিক সূত্র বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে নিশ্চিত করেছে যে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র আইএসআইএস নেতার বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়েছিল, তবে তা সফল হয়েছিল কিনা তা প্রকাশ করবে না।

নিউজউইক জানিয়েছে যে মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগ হোয়াইট হাউসে জানিয়েছে যে সিরিয়া থেকে গোয়েন্দা তথ্যের পরে অভিযান চালিয়ে আল-বাগদাদীকে হত্যা করা হয়েছিল, তবে এটি এখনও যাচাই করা দরকার।

আল-বাগদাদী ২০০৩ সালে মার্কিন নেতৃত্বাধীন ইরাক আক্রমণ চালানোর পরে আল-কায়েদাতে সক্রিয় হয়েছিলেন এবং কুখ্যাত আবু ঘরাইব কারাগারে আটক ছিলেন। আল-বাগদাদিকে সর্বশেষ এপ্রিলে একটি প্রচারমূলক ভিডিওতে দেখা গেছে। আমেরিকা ২০১৬ সালে তার জন্য ২৫ মিলিয়ন ডলার পুরষ্কার ঘোষণা করেছিল।তিনি দীর্ঘদিন ধরে ইরাক-সিরিয়া সীমান্তের কোথাও লুকিয়ে ছিলেন বলে মনে করা হয়।

আইএস-এর মিডিয়া নেটওয়ার্ক সেপ্টেম্বরে আল-বাগদাদির কাছ থেকে ৩০ মিনিটের একটি অডিও বার্তা জারি করেছিল, যেখানে তিনি বলেছিলেন যে প্রতিদিন অপারেশন হচ্ছে এবং সমর্থকদের ইরাক ও সিরিয়ায় শিবিরে বন্দি মহিলাদের তাদের দলের সাথে যোগসূত্র থাকার কারণে মুক্তি দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে। অডিও বার্তায় আল-বাগদাদী আরও বলেছিলেন যে ইরাক এবং আফগানিস্তানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং তার প্রক্সিগুলি পরাজিত হয়েছে এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে মালি ও নাইজারে “টেনে” নিয়ে গেছে। ইতোমধ্যে আইসিসের সহযোগীরা সাম্প্রতিক বছরগুলিতে ব্রিটেন, জার্মানি, ফ্রান্স এবং এর বাইরেও সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে।