দুদকেরই আট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অনুসন্ধান শুরু

আগের সংবাদ

ডা. শাহ আলমগীর হত্যায় গ্রেপ্তার ১

পরের সংবাদ

সাকিবদের দুষলেও আশাবাদী বিসিবি প্রধান

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: October 22, 2019 , 5:16 pm

বেতন বৃদ্ধিসহ ১১ দফা দাবিতে ক্রিকেটারদের হঠাৎ ডাকা ধর্মঘটের পেছনে ষড়যন্ত্র দেখতে পেলেও বিপরীতদিকে তাদের নিয়ে আশাবাদীও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। আগামী নভেম্বরে ক্রিকেটাররা ভারত সফরে যাবেন বলেই তিনি আশা করছেন। বলছেন, আশা করি খেলোয়াড়রা যাবে।

মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) বিসিবিতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ক্রিকেটারদের ১১ দফা দাবি নিয়ে বোর্ডের অবস্থান তুলে ধরতে গিয়ে বিসিবি প্রধান এমন আশাবাদের কথা জানিয়েছেন।

ধর্মঘটে যাওয়া ক্রিকেটারদের নিয়ে আশাবাদী হয়ে বিসিবি প্রধান এটাও বলেছেন, তারা না গেলে তাদেরই ক্ষতি, দেশের ক্রিকেটের ক্ষতি। আমি দেখব কে কে যায়। আমি এও জানি বেশিরভাগ খেলোয়াড়ই যেতে চায়। কিন্তু তাদের ভুল পথে চালানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিতে সংবাদ সম্মেলনে পাপন বলেছেন, আমরা তাদের যেকোনো কথা শোনার জন্য প্রস্তুত আছি। আমাদের কাছে এলেই তাদের দাবি নিয়ে কথা হবে।

এর আগে বোর্ড পরিচালকদের সঙ্গে জরুরি বৈঠক করেন বিসিবি সভাপতি। এরপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে জানান ক্রিকেটারদের এমন ধর্মঘটে তিনি ক্ষুদ্ধ। বলেন, আমাদের সঙ্গে আগে কোন কথা না বলেই ধর্মঘটে যাওয়া সাধারণ ঘটনা নয়। এর পেছনে ষড়যন্ত্র রয়েছে। বাংলাদেশের ক্রিকেটকে ধ্বংস করতে চাইছে একটি মহল।

পাপন আরো বলেন, পরিকল্পিতভাবে দেশের বাইরে আমাদের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করার চেষ্টা করছে তারা। সেটিতে সফল হয়েছে। ভারত সফরকে নষ্ট করতে চাইছে তারা। আইসিসি, এসিসি থেকে আমাকে ফোন করে এ ব্যাপারে জানতে চেয়েছে।

বিসিবি সভাপতি বলেন, তারা মনে করছে আমরা ক্রিকেটারদের কিছুই দেই না। কিন্তু জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের এ পর্যন্ত ২৪ কোটি টাকা শুধু বোনাস দিয়েছি। তারা যে সময়ে, যেভাবে চেয়েছে সেভাবেই সুবিধা দিয়েছি। না বললেও অনেক সুবিধা দিয়েছি। টাকার জন্য খেলা বন্ধ করে দেয়া দুঃখ্যজনক ঘটনা।

সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি সভাপতি কিছুটা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, তারা যে দাবিগুলো দিয়েছে তারা জানে আমরা সব মেনে নেব। তাই আমাদের সঙ্গে কোনো কথাই বলেনি তারা। এমনকি ফোনে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু কেউই ফোন ধরেনি।

ক্রিকেটারদের ধর্মঘটের কারণে ১০ থেকে ১২ জন উপকৃত হবে দাবি করে পাপন বলেন, বাকি সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হবে। অনেকেই না বুঝে এই ধর্মঘটে সামিল হয়েছে। যারা এটির সঙ্গে জড়িত তাদের আপনাদের সামনে খুঁজে বের করা হবে।

ক্রিকেটারদের একটি দাবি ছিল বেশি বেশি করে আরো ঘরোয়া প্রতিযোগিতার আয়োজন করা প্রসঙ্গে পাপন বলেন, আমি আরো চারটি প্রতিযোগিতা বাড়িয়ে দেব। কিন্তু তাদের খেলতে হবে। তারা তো খেলেই না। আর বাসের কথা বলেছে? নিম্নমানের বাসে করে খেলোয়াড়দের নাকি আনা নেয়া করা হয়। সে কি কোনোদিন বাসে চড়ে দেখেছে? না জেনেই কথা বলেছে সে।

ম্যাচ পাঁতানো সম্পর্কে পাপন বলেন, আমরা কোনো প্রমাণ পাইনি ম্যাচ পাঁতানোর। এখন ক্যামেরা বসিয়েছি। সব খবরই আমরা পাই।