আমার সেই গর্বের ক্যাম্পাস ফিরিয়ে দাও

আগের সংবাদ

ডিসেম্বরেই চামড়াশিল্প নগরীতে সিইটিপি

পরের সংবাদ

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ

ভুটানে মেয়েরা

প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ৮, ২০১৯ , ১:১৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: অক্টোবর ৮, ২০১৯, ৪:৩২ অপরাহ্ণ

Avatar

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশনে  সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বাংলাদেশ দল ভুটানের রাজধানী থিম্পুতে পৌঁছেছে। স্থানীয় আবহাওয়া কিছুটা ঠা ণ্ডা হলেও দলের সবাই সুস্থ এবং শারীরিকভাবে ফিট আছেন বলে জানা গেছে। আজকে টুর্নামেন্টের মূল ভেন্যু চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে মেয়েরা অনুশীলনে নামবেন। এর আগে সোমবার বিকেল ৩টায় দ্রুুক এয়ারলাইন্সযোগে ভুটানের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন, গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা।

প্রতিযোগিতায় নতুন ও পুরনোদের নিয়ে গড়া দল নিয়ে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ। বয়সের কারণে টুর্নামেন্টে খেলতে পারছেন না আঁখি-সানজিদা-মারিয়ারা। ২৩ জনের দলে মাত্র ৯ জনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা আছে, বাকিরা অভিষেকের অপেক্ষায়। আগামীকাল থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত ভুটানের থিম্পুতে অনুষ্ঠিত হবে বয়সভিত্তিক এই প্রতিযোগিতা।

বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত, ভুটান ও নেপাল এতে অংশ নিচ্ছে। রাউন্ড রবিন লিগ শেষে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দুটি দল ফাইনাল খেলবে। টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী দিন বুধবার বাংলাদেশ স্বাগতিক ভুটানের মুখোমুখি হবে। ১১ অক্টোবর নেপাল ও ১৩ অক্টোবর ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামবে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ১৫ অক্টোবর।

বাংলাদেশ ২০১৭ সালে নিজেদের মাঠে প্রথম আসরে ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হলেও গত বছর রানার্সআপ হয়েছিল। কিন্তু এবার ভুটানের তৃতীয় আসরে শিরোপা জিততে চাইছে বাংলাদেশ। দেশ ছাড়ার আগের দিন রবিবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনে (বাফুফে) সংবাদ সম্মেলনে কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন নিজেদের প্রস্তুতি নিয়ে কথা বলেছেন।

টুর্নামেন্টে নিজেদের লক্ষ্যের কথা জানিয়ে কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বলেন, ২০১৮ সালেই আমরা বুঝতে পারি যে আমাদের আগের স্কোয়াড থেকে মনিকা, মারিয়া, তহুরা বা আঁখির মতো অভিজ্ঞ প্রায় ১৫ জন এবার খেলতে পারবে না। এ কারণে এ বিষয়টি মাথায় রেখেই আমরা বিভিন্ন ইভেন্ট থেকে নতুন প্রতিভাবান খেলোয়াড় সংগ্রহ শুরু করি। আমাদের একজন গোলকিপার প্রায় ৬ ফিট। অভিযোগ আসে যে গোলকিপার লম্বা না হলে গোল খায়, সে ক্ষেত্রে আমরা দেখেছি অস্ট্রেলিয়া আর থাইল্যান্ডের গোলকিপার লম্বা হওয়া সত্তে¡ও অনেক বেশি গোল খেয়েছিল।অন্যদিকে আমাদের রূপন চাকমা যথেষ্ট ভালো করেছে।

তিনি আরো বলেন, ‘মেয়েরা নিবিড় অনুশীলনের মধ্যে আছে। আশা করছি এই দলটি আমাদের হতাশ করবে না। খেলোয়াড়দের প্রতিভা আছে। এদের নিয়েই আমরা লড়াই করতে পারব। আমাদের লক্ষ্য শিরোপা জেতা। আমরা চ্যাম্পিয়ন হতে চাই। তবে বাকি তিন দলও শক্তিশালী।

অধিনায়ক শামসুন্নাহার জুনিয়রও একই কথা বললেন, ‘এই প্রতিযোগিতায় আমরা দুবার খেলেছি। প্রথমবার ঢাকায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছি, গতবার রানার্সআপ। এবার চ্যাম্পিয়ন হতে চাই। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন। আগের বার ভালো খেলতে পারিনি। এবার ভালো খেলে শিরোপা জিততে চাই।’
ওই সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন ফিফা কাউন্সিল মেম্বার, এএফসি ও বাফুফে কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য এবং বাফুফে মহিলা ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ, বাফুফে সদস্য ও দলের ম্যানেজার মো. আমিরুল ইসলাম বাবু, সহকারী প্রশিক্ষক মাহাবুবুর রহমান লিটু।