ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে ছাত্রদলের কর্মসূচি ঘোষণা

আগের সংবাদ

ফাহাদ হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি

পরের সংবাদ

সব দাবি মেনে নেয়ার আশ্বাস

ফাহাদ হত্যার ৩৭ ঘণ্টা পর ক্যাম্পাসে বুয়েট ভিসি

প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ৮, ২০১৯ , ৬:৩৮ অপরাহ্ণ | আপডেট: অক্টোবর ৮, ২০১৯, ৯:৩৩ অপরাহ্ণ

কাগজ প্রতিবেদক

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনার ৩৭ ঘণ্টা পর ক্যাম্পাসে প্রকাশ্যে এসে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে পড়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম। বুয়েটের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদ শের-ই-বাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে নির্যাতনের শিকার হয়ে মৃত্যুবরণ করার দু’দিন পর শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের দেখা পেয়ে প্রশ্নবানে জর্জরিত করেন তাকে। তবে উপাচার্য তাদের প্রশ্নের জবাব দিতে ব্যার্থ হলে ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে পড়েন।

একপর্যায়ে উপাচার্যের উদ্দেশ্যে ‘ভুয়া ভুয়া’ স্লোগান দিতে থাকেন শিক্ষার্থীরা। আজ সন্ধ্যা ৬টার কিছু সময় পর এসব ঘটনা ঘটে। এসময় শিক্ষার্থীরা তাদের দাবি সম্বলিত একটি পত্র উপাচার্যের হাতে তুলে দেন।

তবে সাড়ে ৬টার দিকে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সামনে এসে হ্যান্ডমাইকে উপাচার্য ঘোষণা দেন, আবরার ফাহাদ হত্যার সুবিচার নিয়ে শিক্ষার্থীদের সকল দাবি মেনে নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এরপরও শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে উপাচার্য তাদের প্রশ্নের জবাব দিতে সেখানে অবস্থান করেন।

উপাচার্য সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা-বৈঠক করে ক্রমান্বয়ে দাবি মেনে নেয়ার আশ্বাস দিলেও শিক্ষার্থীরা দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত আগামীকাল থেকে সকল প্রশাসনিক এবং পাঠদানের কার্যক্রম বন্ধ থাকবে বলে ঘোষণা দেন।

উল্লেখ্য, আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা তাদের সঙ্গে মুখোমুখি কথা বলার জন্য আজ বিকেল ৫টা পর্যন্ত উপাচার্যকে আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন। তবে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা না বলে বিকেল সাড়ে ৪টায় বুয়েট কেন্দ্রীয় মসজিদের পাশের গেট দিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করেন তিনি। সেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন ও বিভাগীয় প্রধানদের সঙ্গে বৈঠক করেন। শেষে তিনি বাইরে এসে শিক্ষার্থীদের মুখোমুখি হন এবং তাঁদের প্রশ্নের উত্তর দেন।

  • আরও পড়ুন
  • লেখকের অন্যান্য লেখা