বুয়েট হলে ছাত্রের মৃতদেহ, আঘাতের চিহ্ন

আগের সংবাদ

কিউইদের উড়িয়ে সিরিজ জিতল যুবারা

পরের সংবাদ

এগিয়ে গেল ভারত

প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ৭, ২০১৯ , ১১:১০ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: অক্টোবর ৭, ২০১৯, ১১:১০ পূর্বাহ্ণ

Avatar

ভারতের মাটিতে কোহলিদের ৩৯৫ রানের চ্যালেঞ্জের জবাবে শেষ দিনে টেস্ট জিতবে দক্ষিণ আফ্রিকা? এ ভাবনা কোনো প্রোটিয়া সমর্থক ভেবেছিলেন কিনা সন্দেহ। কারণ এর আগে এ রান তাড়া খেলতে নেমে কেউ জিততে পারেনি। ড্র করতে সমর্থ হয়েছিল দুই দল। তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে গতকাল দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২০৩ রানে হারিয়ে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ভারত। জয়ের মঞ্চ আগেই গড়ে রেখেছিলেন রবি শাস্ত্রীর শিষ্যরা। পরে বাকিটা সারলেন বোলাররা।

রবিবার (৬ অক্টোবর) জয়ের জন্য প্রোটিয়াদের দরকার ছিল ৩৮৪ রান আর ভারতের প্রয়োজন ছিল ৯ উইকেট। ৩৯৫ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে প্রোটিয়ারা ১৯১ রানে গুটিয়ে যায়। বিশাখাপত্তম টেস্টে প্রথমবার ওপেনিংয়ে নেমে ভারতের রোহিত শর্মা দুই ইনিংসেই সেঞ্চুরি করেছেন। এ ছাড়া টেস্ট ইতিহাসে এক ম্যাচে সর্বোচ্চ ১৩টি ছক্কার রেকর্ডও স্পর্শ করেছেন তিনি। তাই ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন রোহিত শর্মা।

গতকাল পঞ্চম দিন লাঞ্চের আগেই ৭ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে ফাফ ডু প্লেসির দল। পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে দলটির টপঅর্ডার ও মিডল অর্ডার। নবম উইকেটে ড্যান পিটের সঙ্গে ৯১ ও শেষ উইকেটে কাগিসো রাবাদার সঙ্গে ৩০ রানের জুটি গড়ে হারের ব্যবধানই শুধু কমাতে পেরেছেন মুসুসামি। পিট করেন ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৫৬ রান। ৪৯ রানে অপরাজিত থাকেন মুসুসামি। ভোগান্তি বাড়ানোর মূল কাজটি করেছেন মোহাম্মদ শামি। ১০.৫ ওভার বল করেই ৫ উইকেট তুলে নেন এ পেসার। প্রতিপক্ষের দ্বিতীয় ইনিংসে পুরনো বলে শামি সব সময়ই ভয়ঙ্কর পেসার। এ নিয়ে চতুর্থবারের মতো প্রতিপক্ষের দ্বিতীয় ইনিংসে ৫ উইকেটের দেখা পেলেন শামি। ৪ উইকেট নিয়েছেন স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজা। হ্যাটট্রিকের সুযোগও ছিল তার। তবে প্রোটিয়াদের দ্বিতীয় ইনিংসে ৮৭ রানে ৪ উইকেট নেন জাদেজা।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা ভারতের হয়ে ডাবল সেঞ্চুরি করেন ওপেনার মায়াঙ্ক আগারওয়াল। সেঞ্চুরির দেখা পান আরেক ওপেনার রোহিত শর্মা। এরপর ৭ উইকেট খুইয়ে ৫০২ রান তুলে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছিল ভারত। প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রোটিয়া ওপেনার ডিন এলগার একপ্রান্ত ধরে রেখে দলকে টানতে থাকেন। ২৮৭ বলে ১৮টি চার আর চারটি ছক্কায় করেন ১৬০ রান। দলপতি ফাফ ডু প্লেসিস ৫৫ রান করেন। ডি কক সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে করেন ১১১ রান। এরপর নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৪৩১ রানে গুটিয়ে যায় প্রোটিয়ারা।দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে ক্যারিয়ারের পঞ্চম টেস্ট সেঞ্চুরির দেখা পান রোহিত শর্মা। এক ম্যাচে ১৩টি ছক্কা হাঁকিয়ে গড়েন দারুণ এক বিশ্ব রেকর্ড, ভেঙে দেন পাকিস্তানের ওয়াসিম আকরামের ১২ ছক্কার রেকর্ড।