শিক্ষকদের কষ্টের ‘অষ্টপ্রহর’

আগের সংবাদ

নয়াদিল্লিতে হাসিনা-মোদীর বৈঠক

পরের সংবাদ

শিষ্যদের নৈপুণ্যে সন্তুষ্ট জেমি ডে

প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ৫, ২০১৯ , ১২:০৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: অক্টোবর ৫, ২০১৯, ১২:৪৪ অপরাহ্ণ

Avatar

দিনে দিনে ফুটবলের হারানো জৌলুস ফিরে পাচ্ছে বাংলাদেশ। যে ভুটানের বিপক্ষে ২০১৬ সালে এশিয়ান কাপ প্রাক বাছাইয়ে হেরেই তিন বছরের জন্য নির্বাসনে যেতে হয়েছিল লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের। ভুটানের একমাত্র জয় উলট-পালট করে দিয়েছিল দেশের ফুটবল। ওই হারের ফলে ফিফা ও এএফসির কোনো আন্তর্জাতিক ফুটবল ম্যাচে অংশ নিতে পারেনি দেশের ফুটবলাররা। এবার ঘরের মাঠে সেই ভুটানকে নিয়ে ছেলেখেলা খেলেছে জেমি ডের শিষ্যরা। দুই প্রীতি ম্যাচে গুনে গুনে ৬ গোল দিয়েছে জামাল ভূঁইয়ারা।

বিশ্বকাপ ২০২২ বাছাই ও এশিয়ান কাপ ২০২৩ যৌথ বাছাইয়ের কাতারের বিপক্ষে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ১০ অক্টোবর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে। এশিয়ার সবচেয়ে বড় দল এখন এই কাতার। গত বছর সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাটিতে অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপে জাপান, ইরান, ইরাকের মতো শক্তিশালী দলগুলোকে পেছনে ফেলে শিরোপা জিতে নেয় কাতার। তাই এশিয়ার চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে ম্যাচ খেললে বাংলাদেশ বড় অভিজ্ঞতা অর্জন করবে তা নিশ্চিত। কাতারের বিপক্ষে ম্যাচ খেলেই ভারতের উদ্দেশে উড়াল দেবে জেমি ডের শিষ্যরা। কলকাতার সল্টলেক স্টেডিয়ামে ১৫ অক্টোবর মুখোমুখি হবে জামাল ভূঁইয়ারা। এর এক মাস পর নভেম্বরের ১৪ তারিখ ওমানের মাটিতে ওমানের বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ।

কাতার এবং ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে ভুটানের বিপক্ষে দুই জয় লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছে। প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে ৪-১ গোলে হারানোর পর ভুটানকে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে ২-০ গোলে হারায় বাংলাদেশ। ফলে দীর্ঘদিন পর টানা দুই ম্যাচে জয়ের দেখা পায় দেশের ফুটবল। তাই পরপর দুই ম্যাচে জয় তুলে নেয়ায় মামুনুল-ইয়াসিনদের ওপর সন্তুষ্ট জাতীয় দলের ইংলিশ কোচ জেমি ডে। ভুটানের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে শিষ্যদের প্রতি নিজের সন্তুষ্টির কথাই জানান তিনি।

তবে ম্যাচ জিতলেও তার শিষ্যদের কিছু ভুল ছিল বলে মনে করেন জেমি। তার বিশ্বাস মামুনুলরা দ্বিতীয় ম্যাচে যে ভুলগুলো করেছে তা ১০ অক্টোবর কাতারের বিপক্ষে বিশ্বকাপ ২০২২ ও এশিয়ান কাপ ২০২৩ যৌথ বাছাইয়ের ম্যাচের আগে শুধরে নিবে এবং তিনি এ ব্যপারে বেশ আশাবাদী। ইংলিশ কোচ জেমি ডে বলেন, ছেলেদের পারফরমেন্সে আমি সন্তুষ্ট। পরপর দুই ম্যাচে আমরা জয় তুলে নিয়েছি। এটা নিশ্চিতভাবেই আমাদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে। এটা কাজে লাগাতে হবে কাতারের বিপক্ষে ম্যাচে। তবে এখনো আমাদের বেশ কিছু ভুল হচ্ছে। হাতে যে সময় পাবো এর মধ্যে এগুলো নিয়ে কাজ করব। আশা করছি ছেলেরা তা শুধরে নিতে পারবে।

গত এশিয়ান গেমস ফুটবলের কথা নিশ্চয় মনে আছে সবার। মনে থাকার কথাই কারণ এশিয়ান গেমসে ফুটবলে কাতারকে ১-০ গোলে হারায় বাংলাদেশ। এশিয়ান গেমসে খেলেছিল অনূর্ধ্ব-২৩ দল। কিন্তু এই দলের বেশ কয়েকজন এখন জাতীয় দলে খেলছেন। ওই দিন বাংলাদেশের পক্ষে জয়সূচক গোলটি করেন জামাল ভূঁইয়া। কাতারকে হারানোর সেই অভিজ্ঞতা এবার ঘরের মাঠে কাজে লাগাতে চায় বাংলাদেশ। ওই জয়ও নিশ্চয় অনুপ্রেরণা জোগাবে ১০ অক্টোবরের ম্যাচে।

এ ছাড়া বাংলাদেশ দলের বর্তমান পারফরমেন্সও বেশ সন্তুষজনক কোচ জেমি ডের কাছে। ভুটানের বিপক্ষে ছোট ভুলগুলো বাদ দিলে ভালো পারফরমেন্সই করেছে জামাল-মামুনুলরা। তা ছাড়া ভুটানের বিপক্ষে খেলার আগে গত ১০ সেপ্টেম্বর বিশ^কাপ ও এশিয়ান কাপের যৌথ বাছাইয়ে আফগানিস্তানের বিপক্ষে মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ। সেই ম্যাচটি বাংলাদেশ হারে ১-০ গোলের ব্যবধানে। ম্যাচটিতে দেশের ফুটবলারদের পারফরমেন্স ছিল সন্তুষ্টজনক।

ম্যাচের শেষের দিকে বেশ কয়েকটি ভালো সুযোগও তৈরি করেও গোল আদায় করতে পারেনি জামাল-মামুনুলরা। তবে ওই ম্যাচটিতে রেফারির বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের বিপক্ষে গিয়েছিল। সেটির প্রভাব ম্যাচে পড়েছিল। এবারের বিশ^কাপ বাছাইয়ে কাতারকে পেয়ে বেশ লাভবান হয়েছে বাংলাদেশ। কারণ কাতার গত বছর প্রথমবারের মতো এশিয়ান কাপের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। তা ছাড়া কাতার গত জুলাইয়ে দক্ষিণ আমেরিকায় অনুষ্ঠিত কোপা আমেরিকায়ও খেলেছে। তাদের অভিজ্ঞতা অনেক। এমন অভিজ্ঞ দলের বিপক্ষে খেললে জামালরাও অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারবে।

বিষয়: