আফগানদের উড়িয়ে দিল টাইগাররা

আগের সংবাদ

নদী দূষণে এগিয়ে ওয়াসা

পরের সংবাদ

না ফেরার দেশে আবৃত্তিশিল্পী কামরুল হাসান মঞ্জু

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯ , ২:৫৬ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯, ২:৫৭ পূর্বাহ্ণ

Avatar

নব্বই দশকের খ্যাতিমান আবৃত্তিশিল্পী কামরুল হাসান মঞ্জু আর নেই। পরিবারের স্বজনরা জানান, সন্ধ্যায় বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার বাসায় নাশতার টেবিলে হঠাৎ বমি শুরু করেন মঞ্জু। এ অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে নেয়া হলে ডাক্তারেরা মৃত ঘোষণা করেন। এর আগে তিনি আরও তিনবার স্ট্রোক করেছিলেন। মৃত্যুকালে কামরুল হাসান মঞ্জুর বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর।

আশির দশকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র থাকাকালে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে সম্পৃক্ত হন কামরুল হাসান মঞ্জু। সে সময় বিভিন্ন মঞ্চে আবৃত্তি করে এরশাদবিরোধী আন্দোলনে ভূমিকা রাখেন। তার আবৃত্তি করা সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের কবিতা ‘চে তোমার মৃত্যু আমাকে অপরাধী করে দেয়’ ব্যাপক জনপ্রিয় হয়।

আবৃত্তিচর্চার পাশাপাশি লেখালেখিও করতেন মঞ্জু। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, জীবনানন্দ দাশ, শক্তি চট্টোপাধ্যায়, পূর্ণেন্দু পত্রী, জয় গোস্বামী, সুভাষ মুখোপাধ্যায় থেকে শুরু করে সৈয়দ শামসুল হক, শামসুর রাহমান, নির্মলেন্দু গুণের মতো বিখ্যাত কবিদের কবিতা তাঁর কণ্ঠেই তরুণ প্রজন্মের কাছে জনপ্রিয়তা লাভ করে।

বেশ কিছু আবৃত্তি অ্যালবামও বিভিন্ন বিষয়ে লেখা বই রয়েছে তাঁর। ঢাকায় আবৃত্তি কর্মশালা কিংবা কোনো কোর্স হয়েছে, অথচ কামরুল হাসান প্রশিক্ষক হিসেবে নেই, এমন ঘটনা কম ঘটেছে। কিন্তু একসময় স্ট্রোক করে অসুস্থ হয়ে পড়লে ধীরে ধীরে শিল্প সাহিত্যের এলাকা থেকে দূরে সরে যান।

কামরুল হাসান মঞ্জু ১৯৫৬ সালের ১৬ জানুয়ারি যশোরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি গণমাধ্যম বিষয়ক উন্নয়ন সংস্থা ম্যাস লাইন মিডিয়া সেন্টার-এমএমসির প্রতিষ্ঠাতা নির্বাহী পরিচালক ছিলেন।

তাঁর ছোটভাই জানান, শনিবার রাতেই তাঁর জানাজা পড়ানো হয়। সেখান থেকেই দাফনের উদ্দেশে যশোর রওনা হন তাঁরা। রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) যশোর কেন্দ্রীয় কবরস্থানে মঞ্জুর দাফন হওয়ার কথা রয়েছে।