বাসা থেকে কার্যালয়ে নেয়া হয়েছে শামীমকে

আগের সংবাদ

ঢাকায় শুটিং করছেন শ্রাবন্তী

পরের সংবাদ

যুবলীগ নেতা শামীম ৭ দেহরক্ষীসহ গ্রেপ্তার

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯ , ৩:৩৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯, ৬:২৭ অপরাহ্ণ

Avatar

রাজধানীর প্রভাবশালী ঠিকাদার যুবলীগ নেতা এস এম গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জি কে শামীমকে সশস্ত্র সাত দেহরক্ষীসহ গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাজধানীর নিকেতনে তার বাসায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে র‌্যাবের বিশেষ একটি টিম। তার বিরুদ্ধে টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজির সুনির্দিষ্ট অভিযোগ রয়েছে।

নিকেতনের বাসাটি শামীম ব্যবসায়িক কার্যালয় হিসেবেও ব্যবহার করেন। অভিযানের সময় কার্যালয়ের ভেতর থেকে বিপুল পরিমাণ বিদেশি মুদ্রা, মদ, আগ্নেয়াস্ত্র, মাদক, নগদ অর্থ, ২০০ কোটি টাকার এফডিআর চেক উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তার নেতৃত্বে এই অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।

আলোচিত জি কে শামীম সবুজবাগ, বাসাবো, মতিঝিলসহ বিভিন্ন এলাকায় প্রভাবশালী ঠিকাদার হিসেবেই পরিচিত। গণপূর্ত ভবনের বেশির ভাগ ঠিকাদারি কাজই তিনি নিয়ন্ত্রণ করেন। বিএনপি-জামায়াত শাসনামলেও গণপূর্তে এই শামীমই ছিলেন ঠিকাদারি নিয়ন্ত্রণকারী।

অভিযানের নেতৃত্বে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম

জি কে শামীম এক সময় যুবদলের কেন্দ্রীয় সহসম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। পরে দলবদল করে যুবলীগের যোগ দেন। এক পর্যায়ে তিনি যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সমবায় বিষয়ক সম্পাদক পদ লাভ করেন। তিনি বিএনপির কেন্দ্রীয় প্রভাবশালী নেতা ও সাবেক গণপূর্ত মন্ত্রী মির্জা আব্বাসের খুবই ঘনিষ্ঠ।

বিষয়: