স্কুলে ‘ই-মনিটরিং সিস্টেম’ চালুর সুপারিশ

আগের সংবাদ

লেখক-প্রকাশকদের দক্ষতা বৃদ্ধির প্রশিক্ষণ

পরের সংবাদ

অংশ নিচ্ছে ১০ হাজার শিশু

বর্ণাঢ্য আয়োজনে শিশু-কিশোর উৎসব

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯ , ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯, ১২:৩৩ পূর্বাহ্ণ

Avatar

‘আমরা সবাই মঞ্চকুড়ি, নট নন্দনে ফুটবো’ এ স্লোগানের মধ্য দিয়ে সারাদেশের প্রায় দশ হাজার শিশুদের অংশগ্রহণে শুরু হচ্ছে ১৪তম জাতীয় শিশু-কিশোর নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব। নয়দিনের বিশাল উৎসবটি বসছে শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর)। ২০ থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর শিল্পকলা একাডেমি ও পিপলস থিয়েটার অ্যাসোসিয়েশনের যৌথ আয়োজনে এ উৎসবে সারাদেশের ৬৪ জেলা থেকে আসা ৯৫টি শিশু নাট্যদল অংশ নেবে।

শুধু নাটক মঞ্চায়নই নয়, একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা, জাতীয় চিত্রশালা, জাতীয় সংগীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তন ও একাডেমি প্রাঙ্গণসহ প্রতিদিন ৮টি ভেন্যুতে ৯টি জেলার ৮৫টি পরিবেশনা অনুষ্ঠিত হবে। সেইসঙ্গে দশ হাজার শিশুর মধ্য থেকে ৪০০ শিশুকে ‘মঞ্চকুঁড়ি তনয় শিশু পদক’ দেয়া হবে। পাশাপাশি পদক দেয়া হবে উৎসবে অংশ নেয়া বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন প্রতিটি শিশুকে।

উৎসব উপলক্ষে বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) শিল্পকলা একাডেমির সেমিনার কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে একাডেমির মহাপরিচালক লিযাকত আলী লাকী বলেন, বিকশিত শিশুই আলোকিত আগামী। সেই আলোকিত শিশু গড়তেই এ আয়োজন। আমরা চাই শিশুবান্ধব সমাজ গঠন করতে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়তে হলে শিশুদের মানবিক, সংস্কৃতিমনস্ক করে গড়ে তুলতে হবে।

লিয়াকত আলী লাকী আরও জানান, উৎসবের শেষ দিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন। জন্মদিন উদযাপন উপলক্ষে রয়েছে বিশেষ আয়োজন। রয়েছে আলোকচিত্র, চিত্রকর্ম প্রদর্শনী, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শিশুদের পদক বিতরণ অনুষ্ঠান।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন একাডেমির সচিব বদরুল আলম ভুঁইয়া, প্রশিক্ষণ বিভাগের পরিচালক সুশান্ত কুমার সরকার, ইয়াসমিন আলী, জনসংযোগ কর্মকর্তা হাসান মাহমুদ প্রমুখ।

শুক্রবার বিকেলে জাতীয় নাট্যশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উৎসবের উদ্বোধন করবেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বিশেষ অতিথি থাকবেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, শিল্পী মুস্তাফা মনোয়ার, আইটিআই বিশ্বকেন্দ্রের সাম্মানিক সভাপতি রামেন্দু মজুমদার এবং বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশানের সেক্রেটারি জেনারেল কামাল বায়েজীদ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক ও পিপলস থিয়েটার অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা লিয়াকত আলী লাকী। উদ্বোধনী উপলক্ষে আনন্দ র‌্যালি, আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান থাকছে।

নয়দিনের এ উৎসবে সারাদেশ থেকে আসা শিশু-কিশোর শিল্পীরা পরিবেশন করবে নাটক, একক অভিনয়, স্কুল থিয়েটার, সঙ্গীত, নৃত্য, আবৃত্তি, চিত্রাঙ্কন এবং ৭ই মার্চের ভাষণ। শিশুদের জন্য থাকবে অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনী, চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, চলচ্চিত্র কর্মশালা, নাট্য কর্মশালা, পাপেট থিয়েটার, ঐতিহ্যবাহী পুতুলনাট্য, পাপেট নির্মাণ কর্মশালা, যাদু প্রদর্শনী, বঙ্গবন্ধু পুষ্পকানন নির্মাণ, শিশু আনন্দমেলা এবং বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুদের পরিবেশনা।