‘চতুর্দশ জাতীয় শিশু-কিশোর নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব’ শুক্রবার

আগের সংবাদ

সিআইপি কার্ড পেলেন ১৮২ ব্যবসায়ী

পরের সংবাদ

জিম্বাবুয়েকে ১৭৬ রানের টার্গেট দিল বাংলাদেশ

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯ , ৮:৩৬ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯, ১০:৪৪ অপরাহ্ণ

Avatar

ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হয়ে ১৭৬ রানের টার্গেট দিয়েছে বাংলাদেশ। এর আগে টসে হেরে আগে ব্যাটিং করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ ১৭৫ রান সংগ্রহ করে।

বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে চমক জাগানিয়া ওপেনিং জুটি ভাঙেন কাইল জার্ভিস। লিটন দাসের সঙ্গে ওপেনিংয়ে নেমে ১১ রান করা নাজমুল হক শান্তকে ফেরান তিনি।

এদিকে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় এবং নিজেকে ফিরে পাওয়ার লক্ষ্যে নিয়ে উইকেটে ঝড় তুলেছিলেন লিটন কুমার দাস। ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হাসছিল তার ব্যাট। পাওয়ার প্লেতে এই দুজনের সংগ্রহ ছিল ৩ ওভার শেষে ৩০ রান। যদিও প্রথম ওভারেই আইনসলে বলে জীবন পেয়েছেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ২ছক্কা ৪ বাউন্ডারিতে ৩৮ রান করা লিটনকে ফেরান ক্রিস এমপফু। পাওয়ার প্লেতে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৫৫ রান। এরপর অধিনায়ক সাকিব বেশিদূর এগিয়ে নিতে পারেননি দলকে। ৯ বলে ১০ রান করে সাঝঘরে ফেরেন তিনি। এরপর অভিজ্ঞ মুশফিক তরুন আফিফকে নিয়ে ভালোই সামাল দিচ্ছিলেন। ২৬ বলে ১ ছক্কা ৩ চারে ৩২ রান করে তিনিও ফেরত যান। অনেক দিন অফফর্মে থাকা রিয়াদ স্বস্থি এনে দেন টাইগার শিবিরে। ৬২ রানের অনবদ্য এক ইনিংস খেলেন তিনি।

টাইগারদের সামনে এখন মোটামুটি সহজ এক সমীকরণ। এই ম্যাচ জিতলেই ফাইনাল নিশ্চিত হয়ে যাবে। এক ম্যাচ বাকি থাকতেই টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় হয়ে যাবে জিম্বাবুয়ের।

এখন পর্যন্ত ত্রিদেশীয় সিরিজে দুটি করে ম্যাচ খেলেছে টুর্নামেন্টের তিন দলই। এর মধ্যে ২ ম্যাচেই জয় নিয়ে ৪ পয়েন্টে সবার উপরে আছে আফগানিস্তান। ফাইনাল খেলা তাই বলতে গেলে নিশ্চিত রশিদ খানদের।

তাদের ঠিক পরের অবস্থানেই বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসানের দল ২ ম্যাচে জিতেছে একটিতে, পয়েন্টও- ২। আর জিম্বাবুয়ে দুই ম্যাচ খেলে একটিতেও জয় পায়নি। সবার নিচে আছে তারা।

তাই জিম্বাবুয়ের জন্য এটা বাঁচামরার লড়াই। জিতলে তারা টুর্নামেন্টে টিকে থাকবে। শেষ ম্যাচে খেলতে নামবে আফগানিস্তানের বিপক্ষে। সেই ম্যাচটি হারলেও তখন ফাইনালে যাওয়ার সুযোগ থাকবে, যদি বাংলাদেশ শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে হারে। তবে সেক্ষেত্রে জিম্বাবুয়েকে এগিয়ে থাকতে হবে রানরেটে। আর যদি বাংলাদেশ আর আফগানিস্তান দুই দলকেই হারায়, তবে তো ফাইনাল নিশ্চিত। তখন বাদ পড়বে বাংলাদেশ।

তবে আজ হারলে আর কোনো হিসেব-নিকেশ বাকি থাকবে না জিম্বাবুয়ের। বিদায় নিশ্চিত হয়ে যাবে, আর বাংলাদেশেরও নিশ্চিত হয়ে যাবে ফাইনাল। শেষ ম্যাচটি হবে কেবল আনুষ্ঠানিকতা।

আর বাংলাদেশ যদি আজ হারে, তবে শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানকে হারাতেই হবে। তবে হারাতে না পারলেও কাগজে কলমে সুযোগ থাকবে। যদি জিম্বাবুয়ে আজ জেতার পর শেষ ম্যাচে আবার আফগানিস্তানের কাছে হারে। তখন রানরেটের লড়াই হবে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ের।