গ্রামের মানুষসহ সব পশু দৃষ্টিহীন, কারণ...

আগের সংবাদ

ঢাবিতে ছাত্রলীগের হাতাহাতি

পরের সংবাদ

আফগান নির্বাচন বানচালের চেষ্টায় কমপক্ষে ৪৮ জনকে হত্যা

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯ , ১:০৭ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯, ২:০৩ অপরাহ্ণ

Avatar

আফগানিস্তানে আসন্ন নির্বাচনের আগ মুহুর্তে পৃথক দুটি আত্মঘাতী বোমা হামলায় কমপক্ষে ৪৮ জনকে হত্যা করেছে তালেবান বিদ্রহীরা। এ হামলায় অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন নির্বাচনী প্রচারণায় থাকা বর্তমান রাষ্ট্রপতি আশরাফ গনি। এঘটনায় আহত হয়েছেন নারী শিশুসহ আরো প্রায় ৮০ জন।

মঙ্গলবার (১৭ সেপ্টেম্বর) কাবুলের পারওয়ান প্রদেশ ও কাবুলে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাসের নিকটে পৃথক এ হামলা চালায় তালেবান বিদ্রহীরা ।

রাজধানীর ঠিক উত্তরে পারওয়ান প্রদেশে রাষ্ট্রপতি আশরাফ গনির নির্বাচনী সমাবেশের নিকটে প্রথম হামলা চালায় আত্মঘাতী বোমারু মোটরসাইকেল আরোহী। এসময় আশরাফ গনি সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখছিলেন। এঘটনায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নারী ও শিশুসহ মোট ২৬ জন নিহত এবং ৪২ জন আহত হয়েছে।

প্রথম ঘটনার এক ঘন্টা পরে, আরও একটি বিস্ফোরণে মার্কিন দূতাবাসের কাছে মধ্য কাবুল কেঁপে ওঠে। কর্তৃপক্ষ প্রাথমিকভাবে হতাহতের পরিসংখ্যান না জানালেও পরবর্তিতে জানা যায় ওই হামলায় ২২ জন নিহত এবং আরও ৩৮ জন আহত হয়।

এ ঘটনায় দেশটির রাষ্ট্রপতি নিন্দা প্রকাশ করে বলেন, “এই ঘটনাটি প্রমাণ করেছে যে তালিবানদের পুনর্মিলনের ক্ষেত্রে সত্যিকারে কোন আগ্রহ নেই। হামলা অব্যাহত রাখার মাধ্যমে, তারা প্রমাণ করেছে যে তারা আফগানিস্তানের শান্তি ও স্থিতিশীলতায় আগ্রহী নয়”।

মঙ্গলবার উভয় বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করে গণমাধ্যমে এক বিবৃতিতে তালেবান মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেছেন, “ঘানির সমাবেশের কাছে হামলা ২৮ শে সেপ্টেম্বর ভোট ব্যাহত করার উদ্দেশ্যে করা হয়েছিল। আমরা ইতিমধ্যে জনগণকে নির্বাচনী সমাবেশে অংশ না নেওয়ার জন্য সতর্ক করে দিয়েছি, যদি তাদের কোনও ক্ষতি হয় তবে তা তাদের নিজেদের দায়িত্ব।”

২৮ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের কথা রয়েছে। এই নির্বাচনের সময় ঘোষণার পর থেকেই দেশটির বিভিন্ন স্থানে হামলা হচ্ছে।