বার্তাটি কি সবার কানে পৌঁছাবে?

আগের সংবাদ

সরকারি কর্মকর্তাদের বিমানে চড়ার আহ্বান

পরের সংবাদ

নতুন ভিডিও, মিন্নিই হাসপাতালে নেন রিফাতকে

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯ , ২:২৮ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯, ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ

Avatar

বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডের আরেকটি নতুন ভিডিও পাওয়া গেছে। যে ভিডিওতে দেখা গেছে, কোপানোর পর রক্তাক্ত রিফাত শরীফকে একাই রিকশায় করে হাসপাতালে নিয়ে যান মিন্নি। ঘটনার দিন গত ২৬ জুন সকাল ১০টা ২১ মিনিটে ওই ভিডিও ধারন করা হয়েছে। এটা বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের সিসিটিভির ভিডিও ফুটেজ।

ভিডিওটি সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) প্রকাশিত হয়। এ সম্পর্কে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের সামনে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সিসিটিভি আছে। পাশাপাশি বরগুনা জেলা পুলিশেরও আরেকটি সিসি ক্যামেরা আছে। তবে নতুন পাওয়া ভিডিওটি কোন ক্যামেরার তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

নতুন ভিডিওতে দেখা যায়, ব্যাটারিচালিত একটি রিকশায় করে মিন্নি একাই রক্তাক্ত ও অচেতন রিফাতকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। এক তরুণ রিফাতের অবস্থা দেখে একটি স্ট্রেচার নিয়ে আসেন। এরপর রিফাতকে জরুরি বিভাগে নেয়া হয়। এরপর মিন্নি কাউকে কল করে কথা বলে হাসপাতালের ভেতরে যান। এর কিছু সময় পর মিন্নির বাবা ও চাচা সেখানে যান।

সকাল ১০টা ৩৮ মিনিটে হাসপাতালের সামনে একটি অ্যাম্বুলেন্স আসে। রিফাতের কয়েকজন বন্ধু সেখানে আসেন। ১০টা ৪৪ মিনিটে অক্সিজেন ও দুটি স্যালাইন লাগানো অবস্থায় রিফাতকে স্ট্রেচারে করে অ্যাম্বুলেন্সে তোলা হয়। ১০টা ৪৯ মিনিটে হাসপাতাল প্রাঙ্গণ ত্যাগ করে অ্যাম্বুলেন্সটি।

২৬ জুন সকালে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে রিফাতকে প্রকাশ্যে কোপানোর ঘটনায় ধারণ করা প্রথম ভিডিওটিতে দেখা যায়, সন্ত্রাসীরা যখন কোপাচ্ছিল, তখন তার স্ত্রী মিন্নি প্রাণপণ চেষ্টা করছিলেন স্বামীকে রক্ষার। এরপর দ্বিতীয় দফায় প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায়, রিফাতকে কলেজ গেট থেকে ধরে পূর্ব দিকে নিয়ে যাওয়ার সময় সন্ত্রাসীদের পেছনে মিন্নি ধীরলয়ে হেটে যাচ্ছিলেন। যা নিয়ে সন্দেহ সৃষ্টি হয়েছিল। এরপর ১৩ জুলাই মিন্নির শ্বশুর সংবাদ সম্মেলন করে রিফাত হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগের আঙ্গুল তোলেন পুত্রবধূর দিকে। ১৬ জুলাই মিন্নিকে গ্রেপ্তার করা হয়। গত ৩ সেপ্টেম্বর জামিনে মুক্ত হয়ে বর্তমানে বাবার বাড়িতে আছেন মিন্নি।