রাজধানীতে মানবপাচারকারী চক্রের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

আগের সংবাদ

উত্তরায় ইয়াবা ভাগবাটোয়ারা করতে গিয়ে ৫ পুলিশ গ্রেপ্তার

পরের সংবাদ

শিল্পকলায় ‘সোনাই মাধব’

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯ , ৮:০৪ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯, ৮:০৪ অপরাহ্ণ

Avatar

সোনাই এবং মাধবের প্রেম ও বিচ্ছেদের কাহিনী, আর এর মধ্য দিয়ে ফুটে ওঠা মানব সমাজের বিভিন্ন দিক নিয়ে নাটক ‘সোনাই মাধব’ রবিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা মাতালো। ‘মৈমনসিংহ গীতিকা’ অবলম্বনে পদাবলি যাত্রা ‘সোনাই মাধব’। লোকনাট্য দলের আয়োজনে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পরীক্ষণ থিয়েটারে হলভর্তি দর্শককে মন্ত্রমুগ্ধ করে রাখে সোনাই মাধব। নাটকে ব্যবহৃত গানের সুরারোপ করেছেন দীনেন্দ্র চৌধুরী ও লিয়াকত আলী। নতুন আঙ্গিকে করা নাটকটির পরিকল্পনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী। নাটকে তিনি অভিনয়ও করেছেন।

‘সোনাই মাধব’ নাটকে দেখা যায় গ্রামের দেওয়ান ‘ভাবনা’র অত্যাচারে সুন্দরী মেয়েরা ঘরের বাইরে যেতে পারছে না। সে সোনাইয়ের কথা জেনে তার মামার কাছে যায়। মামা প্রথমে সোনাইকে ভাবনার সঙ্গে বিয়ে দিতে রাজি হয় না, পরে মৃত্যুর ভয় দেখালে সে বলে দেয় নদীতে জল আনতে গেলে যেন সোনাইকে সে বজরায় তুলে নেয়। ভাবনা তাই করে। বজরা থেকে কান্নার শব্দ শুনে মাধব গিয়ে তাকে উদ্ধার করে এবং দেখে সে মেয়ে তারই সোনাই। ঘরে নিয়ে আসে, বিয়ের আয়োজন করে। কিন্তু দেওয়ান মাধবের বাবাকে ধরে নিয়ে যায়, তাই বাবাকে উদ্ধার করার জন্য মাধব যায় দেওয়ানের কাছে। সোনাই এক বছর একা থাকে ঘরে। তারপর ফিরে আসে তার শ্বশুর, বলে সোনাই না গেলে মাধবকে ছেড়ে দেবে না। বাধ্য হয়ে সোনাই যায় মাধবকে ছাড়াতে। দেওয়ান মাধবকে ছেড়ে দিয়ে ঘরে এসে দেখে সোনাই বিষপানে আত্মহত্যা করেছে। কাহিনী শেষ হয় মাধবের হাহাকারে, সে নদীর ঘাটে বসে সোনাইকে ডেকে চলে।

এ যেন নাট্যগাথার এক অভাবিত ইন্দ্রজাল। আমাদের লোকজ নাট্য আঙ্গিক এবং এলিজাবেথিয়ান নাট্য আঙ্গিক যেন মিলেমিশে একাকার হয়ে গেছে। এর কুশীলব, নাট্য কুশীল, গায়ক-গায়িকারা সবাই পালার ঢঙে চতুষ্কোণ মঞ্চের চারধারে বসে ছিল। মঞ্চে তাদের প্রবেশ আর বের হওয়া ছিল উপভোগ্য, কারণ চরিত্রকে ধারণ করে অভিনেতা-অভিনেত্রীরা মঞ্চে প্রবেশ করছিল এবং মঞ্চের বাইরে গিয়ে চরিত্র থেকে বেরিয়ে আসছিল।

নাটকটির প্রায় সব কুশীলবই সঙ্গীত ও নৃত্যবহুল এই প্রযোজনায় মনোগ্রাহী অভিনয় করেছেন। মুখ্য চরিত্র সোনাই আর মাধবের ভূমিকায় রূপসা ও লিটন বিশ্বাসযোগ্য অভিনয় করেছেন। তবে দেওয়ান ভাবনার ভূমিকায় লিয়াকত আলী লাকী তার অনন্য অভিনয় প্রতিভার স্ফুরণ ঘটিয়ে দর্শককে মুগ্ধ করেছেন। যেমন নৃত্যে ছিল তার কুশলী দেহ-ভঙ্গিমা, তেমনি সঙ্গীত ও কথনে ছিল তার পারঙ্গমতা। লাকী আর তার সহশিল্পীদের অভিনয় দর্শকদের আনন্দ-হাসির বন্যায় ভাসিয়ে দিয়েছে নাট্যের বিশেষ বিশেষ মুহূর্তগুলোতে। লাকী ট্র্যাজিক মুহূর্তেও সমসক্ষমতার সঙ্গে অভিনয় করেছেন।

এ ছাড়া সোনাই চরিত্রে রোকসানা, মাধব চরিত্রে জাহিদুল কবির অভিনয় করেছেন। নাটকের অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন- রহিমা খাতুন, উম্মে মরিয়ম, কিশোয়ার জাহান, মোমিন মিয়া, সুচিত্রা রানি সূত্রধর, রওশন হোসেন, তাজুল ইসলাম মুন্সি প্রমুখ।