হাসি হত্যা মামলার প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

আগের সংবাদ

সৌদিতে তেল ক্ষেত্রে হামলার পর কমে গেছে জ্বালানী তেলের সরবরাহ

পরের সংবাদ

বৃষ্টি বন্ধের আশায় ব্যাঙের বিবাহ বিচ্ছেদ

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯ , ১:০২ অপরাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯, ১:০৩ অপরাহ্ণ

Avatar

ভারতের মধ্যপ্রদেশে বৃষ্টির দেবতাকে সন্তুষ্ট করতে প্রচলন আছে ব্যাঙের বিয়ে দেওয়া। প্রচলিত ধারণা অনুযায়ী এর ফলে দেবতা সন্তুষ্ট হয়ে বৃষ্টি ঝরাবেন। কিন্তু এবার সেখানেই দেখাগেল উল্টা রীতি। সম্প্রতি অতিবৃষ্টির ফলে বিপর্যস্ত সে রাজ্য। এবার তাই অতিবৃষ্টি রুখতে সেখানে দুটি ব্যাঙের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ করানো হল। আশা, এত যদি দেবতা খুশি হয়ে বৃষ্টি বন্ধ করেন। গত জুলাই মাসেই বৃষ্টির আশায় ওই ব্যাঙদুটির বিয়ে দেয় স্থানীয়রা।
প্রত্যাশা করা হয় বৃষ্টির দেবতা সন্তুষ্ট হয়ে শুকনো জমিতে অনেক বৃষ্টি ঝরাবেন। কিন্তু গত দু’মাসে মধ্যপ্রদেশের ভোপালে এত বৃষ্টি হয়েছে যে সেখানকার মানুষদের নাজেহাল অবস্থা। এই সময় মাথায় আসে এই আজব ভাবনা। লাগাতার হওয়া বৃষ্টি কমাতে সেখানকার স্থানীয় বাসিন্দারা ঠিক করেন যে এবার ব্যাঙেদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটাতে হবে, তাতে যদি কমে বৃষ্টি। আর সেই মতোই সেখানকার একটি শিবের মন্দিরে যথাযথ “বিচ্ছেদ অনুষ্ঠান” আয়োজন করে দুটি ব্যাঙের প্রতীকী বিচ্ছেদও ঘটিয়েছেন তাঁরা।

সেখানকার ইন্দ্রপুরী এলাকার ওম শিব সেবা শক্তি মন্ডলের সদস্য সুরেশ আগরওয়াল জানান, রাজ্যে বৃষ্টিপাত আনতে আমরা দুটি কাদামাটি দিয়ে তৈরি ব্যাঙেদের মধ্যে বিয়ে দিয়েছিলাম। তবে এখন যেভাবে সমানে বৃষ্টিপাত হয়েই চলেছে তাতে সমস্যায় পড়েছেন মানুষ, তাই এবার বৃষ্টি বন্ধের জন্য আমরা ওই ব্যাঙদুটির বিবাহ বিচ্ছেদ করানো হয়েছে।

মধ্যপ্রদেশে প্রায় সময়েই বৃষ্টির আশায় ব্যাঙের বিয়ে দেওয়ার প্রচলন রয়েছে। বৃষ্টি দেবতাকে সন্তুষ্ট করতে “মান্দুকা পরিণায়া” নামে একটি বিশেষ রীতিও চালু আছে। চলতি বছরেই উদুপিতে এই রীতি মেনে বিয়ে দেওয়া হয় দুটি ব্যাঙের মধ্যে।