পেশা ছাড়ছেন মালাকাররা

আগের সংবাদ

স্নেহের ছায়াতলে থাকতে চাই আমৃত্যু-আসিফ আকবর

পরের সংবাদ

মঞ্চেই সরব তানভীন সুইটি

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯ , ১১:১৩ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯, ৪:০১ অপরাহ্ণ

Avatar

অনেক দিন ধরেই টিভি নাটক কিংবা চলচ্চিত্রে নিয়মিত নন অভিনেত্রী তানভীন সুইটিকে। মাঝে মাঝে কিছু কাজ করেন। তবে দর্শকের কাছে এখনো তুমুল জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। কেন নিয়মিত অভিনয় করেন না? এমন প্রশ্ন রয়েছে সুইটির ভক্তদের। তানভীন সুইটি জানালেন, সংসার এবং ব্যক্তিগত জীবন নিয়েই এখন ব্যস্ত আছেন। তবে অভিনয় থেকে দূরে নন তিনি। সুইটি বললেন, মঞ্চ নাটকে নিয়মিতভাবেই অভিনয় করছি। থিয়েটার (নাটক সরণি) প্রযোজিত ‘মুক্তি’ নাটকে নিয়মিত অভিনয় করছি।

গত বৃহস্পতিবার জাতীয় নাট্যশালার স্টুডিও থিয়েটার মিলনায়তনে নাটকটির ৯৮তম প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হলো। এ ছাড়া বিটিভিতে প্রচার হচ্ছে আকরাম খানের পরিচালনায় ‘কালের যাত্রা’ নামের একটি ধারাবাহিক নাটক। সেখানে অভিনয় করছি। তবে সংখ্যায় বেশি কাজ করা হয় না। আবার একেবারে বিচ্ছিন্নও নয়। আসলে সংসার এবং ব্যক্তিজীবনের ব্যস্ততার কারণেই এখন সেভাবে কাজ করা হয় না।

মুক্তি নাটকটি থিয়েটার নাট্যদল মঞ্চে আনে ২০০৪ সালে। আমেরিকান নাট্যকার লি ব্লেসিং এর ‘দি ইনডিপেনডেন্ট’ অবলম্বনে ভাবানুবাদ করেছেন মিজারুল কায়েস। এটি নির্দেশনা দিয়েছেন ত্রপা মজুমদার। নাটক প্রসঙ্গে সুইটি বলেন, এই নাটকে আমি অভিনয় করেছি পরিবারের ছোট মেয়ের চরিত্রে। মেয়েটি স্বাধীনচেতা। নিজের মতো করে জীবন উদযাপন করে। এদিকে পরিবারে মা চায়, সন্তানেরা তার কাছেই থাকুক। সেই ছোট্ট বয়সের মতো। সন্তানেরা নিজেদের জীবন নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। মায়ের সঙ্গে তৈরি হয় দূরত্ব। এমন একটি পারিবারিক গল্প নিয়েই মুক্তি নাটকটি এগিয়ে যায়। এখানে পারিবারিক বন্ধনের চমৎকার একটি বার্তা দেয়া হয়। এ সময়ের জন্য নাটকের গল্পটি ভীষণ প্রাসঙ্গিক। ২০০৪ সাল থেকে নাটকটি নিয়মিত মঞ্চস্থ হচ্ছে। প্রায় সব প্রদর্শনীতেই আমি অভিনয় করেছি।

সুইটির পথচলা শুরু হয়েছিল ১৯৯৫ সালে মঞ্চে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে। প্রথম অভিনয় করেন সৈয়দ শামসুল হকের ‘পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়’ নাটকে। এরপর সুইটি একে একে ‘স্পর্ধা’, ‘কৃতদাস’, ‘তোমরাই’, ‘কৃষ্ণকান্তের উইল’, ‘মেরাজ ফকিরের মা’, ‘মেহেরজান আরেকবার’সহ বেশকিছু মঞ্চ নাটকে অভিনয় করেন। এখনো মঞ্চে নিয়মিত তিনি। এদিকে টেলিভিশন নাটকে এখন তিনি অভিনয় করছেন আকরাম খানের পরিচালনায় ‘কালের যাত্রা’ ধারাবাহিক নাটকে। মামুনুর রশীদের রচনা থেকে সবুজ ওয়ালিদের চিত্রনাট্যে নাটকটিতে সুইটির সহশিল্পী হিসেবে অভিনয় করছেন চঞ্চল চৌধুরী। টেলিভিশনে সুইটি প্রথম নাটকে অভিনয় করেন সালমান শাহের বিপরীতে ‘স্বপ্নের পৃথিবী’তে। আফজাল হোসেনের নির্দেশনায় প্রথম বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করেন। তার অভিনীত চলচ্চিত্র আবু সাইয়ীদের ‘বাঁশি’ এবং কামরুজ্জামান কামুর ‘দি ডিরেক্টর’। টেলিভিশন নাটকে অভিনয় প্রসঙ্গে সুইটি বলেন, আমি টিভি নাটক থেকে একেবারে বিচ্ছিন্ন নয়। ব্যক্তিগত ব্যস্ততার জন্য কম অভিনয় করা হচ্ছে।

অভিনয়ে নিয়মিত দেখা না গেলেও রাজনৈতিক বিষয়ে তাকে দেখা যায়। বিগত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য প্রার্থী হবেন বলেও শোনা গিয়েছিল। মনোনয়নপত্রও সংগ্রহ করেছিলেন তিনি। আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রচারণায়ও তাকে দেখা গেছে। এ প্রসঙ্গে সুইটির মন্তব্য, রাজনীতির বাইরে তো আমি নয়। আমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বিশ্বাসী। রাজনীতি এবং সংসার জীবনের বাইরে অভিনয় শিল্পী হিসেবেই সবার হৃদয়ে জায়গা দখল করে আছেন তিনি।
হাসান আলী